বিস্তারিত

হালাল পশুপাখি আল্লাহর নামে জবাই করতে হবে

ছবি : সংগ্রহকৃত

ইসলামে হালাল পশুপাখির গোশত খাওয়ার হুকুম রয়েছে, তবে তা আল্লাহর নামে জবাই করতে হবে। পবিত্র কোরআনে আল্লাহপাক বলেন, ‘তোমরা তা ভক্ষণ কর না, যা আল্লাহর নাম নিয়ে জবাই করা হয়নি, অবশ্যই এটা গুরুতর পাপ।’ পবিত্র কোরআনের আরেকটি আয়াতে বলা হয়েছে, যা দেবতার নামে (বা উদ্দেশ্যে) বলি দেওয়া হয়েছে তা খেও না।’ অর্থাৎ আল্লাহর নামে জবাইকৃত নয়, এমন সব প্রাণী খাওয়া অপরাধ অথবা ইসলামের বিধানবহির্ভূত কাজ। উল্লিখিত দুটি আয়াতে প্রমাণ হয়, যা আল্লাহর নাম নিয়ে জবাই করা হয় না তা নিষিদ্ধ-হারাম।

এখন প্রশ্ন দেখা দেয় যে, মুসলমান কর্তৃক ভুলবশত আল্লাহর নাম না নিয়ে জবাই করলে তা খাওয়া বৈধ হবে কি? এর জবাবে মুফাসসিররা বলেন : মুসলমানের জবাই করা প্রাণী হালাল, চাই তা আল্লাহর নাম নিয়ে জবাই করা হোক বা ভুলক্রমে নাম না নেওয়া হোক। আবু হোরায়রা (রা.) কর্তৃক বর্ণিত এক হাদিসে এ বিষয়টি স্পষ্ট করা হয়েছে। এক লোক রসুল সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সমীপে জানতে চাইল : ইয়া রসুলুল্লাহ! (কোনো পশুপাখি) জবাই করার সময় আমাদের মধ্যে কেউ যদি আল্লাহর নাম স্মরণ করতে ভুলে যায়, তবে তার হুকুম কী হবে? রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ‘প্রত্যেক মুসলমানের মুখেই আল্লাহর নাম বিদ্যমান থাকে।’— তাবারানি। জবাইয়ের সময় আল্লাহর নাম স্মরণে ভুল হলেও সে গোশত খাওয়ার সময় আল্লাহর নাম নিলে তা হালাল বলে বিবেচিত হবে।

আবু মনসুর সূত্রসহ হজরত ইবনে আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণনা করেন, রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘আল্লাহর নাম স্মরণই যথেষ্ট। জবাইকালে আল্লাহর নাম স্মরণে যদি ভুল হয়, তবে অবশ্যই বিসমিল্লাহ বলে এবং আল্লাহকে স্মরণ করে অতঃপর খাও।’—দারেকুতনি। হজরত ওমর ইবনে আবু ওমর সূত্রসহ উম্মুল মুমিনিন হজরত আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণনা করেন : ‘কিছু লোক রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে জিজ্ঞাসা করলেন : লোকেরা আমাদের কাছে গোশত নিয়ে আসে, তারা তা আল্লাহর নামে জবাই করেছে কিনা আমরা জানি না।  এখন আমরা কি তা খাব, না খাব না? রসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, ‘তোমরা আল্লাহর নাম নিয়ে তা খাও।’ মুয়াত্তায়ে ইমাম মালিক, বোখারি বুলুগুল মারাম। আল্লাহ আমাদের জীবনের সব ক্ষেত্রে কোরআন হাদিসের বিধান মেনে চলার তাওফিক দান করুন।

সংবাদের ধরন : ইসলাম নিউজ : মো : ওমর ফারুক