বিস্তারিত

রোহিঙ্গাদের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের পাশে থাকবে

ছবি : সংগ্রহকৃত

জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত দেশগুলোর জন্য যুক্তরাষ্ট্র প্যারিস চুক্তি নিয়ে কাজ করবে বলে জানিয়েছেন দেশটির সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জলবায়ুবিষয়ক দূত জন কেরি।

শুক্রবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে ঢাকায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে তিনি এ কথা বলেন। জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত তহবিলে বাইডেন সরকার বকেয়া ২ বিলিয়ন ডলার পরিশোধ করে আবার কাজ শুরু করবে। যা ট্রাম্প বন্ধ করে দিয়েছিল।

মিয়ানমার থেকে দেশটির সেনাবাহিনীর হাতে বর্বর নির্যাতনের শিকার হয়ে প্রাণ বাঁচাতে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় বাংলাদেশের প্রশংসা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জলবায়ু বিষয়ক বিশেষ দূত জন কেরি।

মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে ভিন্ন পথে হাঁটছে বলেও মন্তব্য করে জন কেরি বলেছেন, বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে যে মানবিকতার উদাহরণ সৃষ্টি করেছে- তা প্রশংসনীয়। এই সংকট সমাধানে যুক্তরাষ্ট্র সবসময় কাজ করে যাবে বলেও আশ্বস্ত করেন বাইডেন প্রশাসনের এই গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি।

এর আগে জলবায়ু শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান কেরি। এ সময় তাকে অভ্যর্থনা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন ও ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার। আগামী ২২ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হবে জলবায়ু শীর্ষ সম্মেলন।

চার ঘণ্টা সফর শেষে আজই ঢাকা ত্যাগের কথা রয়েছে তার। এর আগে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালীন সময়ে ২০১৬ সালে এক দিনের সফরে ঢাকা এসেছিলেন জন কেরি।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক