বিস্তারিত

মোটরসাইকেলে মায়ের লাশ নিয়ে যাচ্ছে শ্মশানে

ছবি : সংগ্রহকৃত

কোনোভাবেই অ্যাম্বুলেন্স বা অন্য কোনো যান সংগ্রহ করতে না পেরে মোটরসাইকেলে করে মায়ের লাশ শ্মশানের নিয়ে যাচ্ছেন ছেলে। সোমবার অন্ধ্রপ্রদেশের কুলম জেলায় এই করুণ ঘটনা ঘটে। এই ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, জি চেনচু (৫০) নামের ওই নারী অস্থুস্থ হলে অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীকুলম জেলার নীলামনি দুর্গ হাসপাতালে নিয়ে যান তার সন্তান। সেখান থেকে একটি ডায়াগনস্টিকে সিটি স্ক্যানের জন্য পাঠান কতর্ব্যরত চিকিৎসক। সেখানে গেলে ডাক্তারা জানান ওই নারীর করোনা উপসর্গ রয়েছে। পরে নমুনা পরীক্ষার করতে দেন। পরীক্ষার ফলাফলের অপেক্ষার সময়ই তিনি মারা যান। সেখানে অ্যাম্বুলেন্স বা অন্য যানবহনের অপেক্ষা করা হচ্ছিল। কিন্তু এরমধ্যেই তার পরিবারের সদস্যরা মরদেহ মোটারসাইকেলে করে সৎকার করতে নিয়ে যান।

জি চেনচুর মরদেহ সৎকারের জন্য বিভিন্ন হাসপাতালে অ্যাম্বুলেন্সের খোঁজ করতে থাকে পরিবার। তবে কোনোভাবেই সেটি জোগাড় করতে পারেননি পরিবারের সদস্যরা। এমনকি, অন্য কোনো গাড়ির মাধ্যমে দেহ শ্মশানের নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থাও করা যায়নি। অবশেষ ওই নারীর মরদেহ মোটরসাইকেলে করে শ্মশানে নিয়ে যান তার ছেলে নরেন্দ্র ও মেয়ের জামাই রমেশ।

উল্লেখ, ভারতের অন্যান্য রাজ্যের মতোই করোনার ছোবলে রীতিমতো ধুঁকছে অন্ধ্রপ্রদেশ। আজ মঙ্গলবার সকালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ওই রাজ্যে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ৯৮১ জন এবং মারা গেছে ৫১ জন করোনা রোগী।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক