বিস্তারিত

বিমান দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে গেল বাংলাদেশ ফুটবল দল

ছবি : সংগ্রহকৃত

বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল বড় ধরনের বিমান দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে গেল। রোববার রাতে ফিফা বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইপর্বের ম্যাচ খেলতে ওমানের উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ে ফুটবল দল। যদিও বৈদ্যুতিক গোলযোগ দেখা দেয়ায় আকাশে ওড়ার প্রায় ঘণ্টাখানেক পর ফ্লাইটটি ঢাকায় ফিরিয়ে আনতে বাধ্য হন পাইলট। শেষ পর্যন্ত অপর একটি ফ্লাইটে সোমবার সকালে ঢাকা ছেড়েছে লাল-সবুজরা।

বাংলাদেশ বিমানের বিজি ০২১ ফ্লাইটে মাসকটের উদ্দেশে উড়াল দেবার কথা ছিল রাত সাড়ে ৯টায়। সেটি দুই ঘণ্টা পর ছেড়ে গেলেও প্রায় এক ঘণ্টা ওড়ার পর বিমানের ভেতর একটি শব্দ হয় এবং সঙ্গে সঙ্গে বিমানের ভেতরের লাইট ও এসি কাজ করা বন্ধ করে দেয়। এসময় বিমানের যাত্রীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে, বিমান আবার জরুরি অবতরণ করে। এসময় পাইলট বিমানে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে ঢাকায় ফেরার ঘোষণা দেন। ঘোষণার পর পরই আতঙ্ক আরও বেড়ে যায় বিমানে। ফুটবলার ও যাত্রীরা ভয় পেয়ে যান। শেষ পর্যন্ত রাত দেড়টার দিকে বিমানটি আবার হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণ করে। ১১ ঘণ্টা পর অন্য একটি ফ্লাইটে ঢাকা ছাড়েন ফুটবলাররা।

বাংলাদেশ ফুটবল দলের গোলরক্ষক আশরাফুল রানা বলেন, বিমানের ভেতরে বসেই দেখতে পাই বিদ্যুৎ চলে গেছে। এটা দেখে আমরা খুব ভয় পেয়ে যাই। ক্যাপ্টেন বলছিলেন এভাবে বিমান চালানো ঝুঁকিপূর্ণ। তাই তিনি আবারও বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনেন বিমান। আল্লাহর রহমতে বড় একটা দুর্ঘটনার হাত থেকে বেঁচে গেছি আমরা। সত্যি আমরা সবাই ভীষণ ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম।

এদিকে ছুটি শেষে আজই সরাসরি ওমানে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন প্রধান কোচ জেমি ডে ও অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া। আগামী ১৪ নভেম্বর ম্যাচ হলেও কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে ১০ দিন আগেই ওমানের রাজধানী মাসকাট যাচ্ছে টিম বাংলাদেশ।

২০২২ বিশ্বকাপ ও ২০২৩ এশিয়ান কাপের বাছাইয়ে ‘ই’ গ্রুপে তিনটি ম্যাচ খেলে মাত্র এক পয়েন্ট সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ। ওমান ম্যাচকে তাই বেশ গুরুত্ব দিচ্ছে জেমি ডে’র শিষ্যরা।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক