বিস্তারিত

বিকেলে খালেদা জিয়াকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেলে নেওয়া হবে

ছবি : সংগ্রহকৃত

আজ শনিবার বেলা ৩টার পর সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য আজ বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) স্থানান্তর করা হচ্ছে।

খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউতে চিকিৎসার জন্য কেবিন ব্লকের একটি কেবিন তৈরি রাখা হয়েছে। এরইমধ্যে কারাগারের সামনে ফায়ার সার্ভিসের একটি গাড়ি অবস্থান করছে।

পুরান ঢাকার পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে খালেদা জিয়ার তিনটি লাগেজ ও হ্যান্ডবেগ নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এসব জিনিস নিয়ে যান বিএনপি চেয়ারপারসনের বাসার কেয়ারটেকার মাসুদ ও ড্রাইভার জলিল।
অন্যদিকে জেল সুপার ইকবাল কবির চৌধুরী বেলা ১১টার দিকে জেলখানার ভেতরে প্রবেশ করেন। এর কিছু সময় পরই কয়েকজন নারী কারারক্ষীকে কারাগারের ভেতরে প্রবেশ করতে দেখা যায়।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় পাঁচ বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত খালেদা জিয়াকে গত ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারের একটি কক্ষে রাখা হয়েছে।

খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের অবনতির বিষয়টি তুলে ধরে তাঁকে দ্রুত রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তির অনুরোধ জানান বিএনপির নেতারা। সরকারের পক্ষ থেকে ইউনাইটেড হাসপাতালের পরিবর্তে বিএসএমএমইউ অথবা সিএমএইচে চিকিৎসা নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।

এই পরিপ্রেক্ষিতে খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়ে হাইকোর্টের নির্দেশনা চেয়ে একটি রিট আবেদন করেন তাঁর আইনজীবীরা। গত বৃহস্পতিবার হাইকোর্ট খালেদা জিয়ার বিষয়ে একটি নির্দেশনা দেন। এতে খালেদা জিয়ার পছন্দের চিকিৎসক ও নিরপেক্ষ চিকিৎসদের সমন্বয়ে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করে বিএসএমএমইউতে চিকিৎসার বিষয়ে নির্দেশনা দেন আদালত।

হাইকোর্টের আদেশে বলা হয়েছে, খালেদা জিয়া তাঁর পছন্দমতো ফিজিওথেরাপিস্ট, গাইনোকোলজিস্ট ও টেকনিশিয়ান নিতে পারবেন। মেডিকেল বোর্ডের অনুমতি সাপেক্ষে বাইরে থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকও আনতে পারবেন। হাইকোর্টের এ নির্দেশনা অনুযায়ী খালেদা জিয়া চিকিৎসা গ্রহণে সম্মত হন বলে জানিয়েছেন অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক