বিস্তারিত

বাউল গান প্রশ্নবিদ্ধ করা যাবে না : প্রধানমন্ত্রী

ছবি : সংগ্রহকৃত

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বাউল গানে সম্পৃক্তরা যেন এমন কোনো কাজ না করেন, যাতে বিশ্ব ঐতিহ্যে বাউল গান প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়ে। তবে চুল কাটা বা বাউলদের প্রতি যেকোনো প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি গ্রহণযোগ্য নয় বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

আজ বুধবার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে আইসিটি মামলায় টাঙ্গাইলের বাউলশিল্পী শরিয়ত বয়াতির গ্রেফতারের বিষয়ে জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনুর সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, একজন বাউলশিল্পীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এখানে বাউল গানের তো কোনো দোষ নেই। বাউল গানে সম্পৃক্ত কেউ যদি কোনো অপরাধে সম্পৃক্ত হন, তাহলেও আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। আইন অনুযায়ী অপরাধের বিচার হবে।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, প্রশ্নকর্তা কি এমন কোনো গ্যারান্টি দিতে পারবেন বাউল গান করছেন বলেই ওই শিল্পী কোনো অপরাধে জড়িত নন। নিশ্চয়ই তিনি এমন কোনো অপরাধ করেছেন, যার জন্য তার বিরুদ্ধে এমন আইনি পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

এর আগে রাজবাড়ীর পাংশার বাউল সম্প্রদায়ের চুল কেটে দেয়ার ঘটনা প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন, পঁচাত্তর-পরবর্তী সামরিক শাসকদের মতো এখনও যদি চুল কেটে দেয়ার মতো কোনো অপরাধের ঘটনা ঘটে, তাহলে সরকার সেটা দেখবে। কারণ অহেতুক চুল কাটা বা বাউলদের প্রতি যেকোনো প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি গ্রহণযোগ্য নয়।

যারা ক্ষমতায় আসেন, তাদের কেউ টি-শার্ট পরে পরিচ্ছন্নতার কাজ শুরু করেন, কৃচ্ছ্রতা সাধনের কথা বলেন, কেউ সাইকেল চালিয়ে অফিসে যাওয়া শুরু করেন। পরে দেখা যায়, তারাই সবচেয়ে দামি গাড়িতে চড়ে ঘুরে বেড়ান, প্যারিস থেকে স্যুট নিয়ে আসেন, শিফন শাড়ি নিয়ে আসেন। মানুষের চুলকাটাসহ এসব কাজ তারাই করেছেন। অবশ্য তাদের এমন উদ্যোগ বেশিদিন টেকে না। তারপরই দেখা যায়, তারা নিজেদের আসল রূপকে প্রকাশ করে ফেলেন।

সংবাদের ধরন : শিরোনাম নিউজ : নিউজ ডেস্ক