বিস্তারিত

পারসোনাকে ২১ লাখ ফারজানা শাকিল’সকে ১৫ লাখ জরিমানা

ছবি : সংগ্রহকৃত

রাজধানীর নামিদামি পার্লারে ব্যবহৃত হচ্ছে চকবাজার ও কামরাঙ্গীরচরে তৈরি নকল পণ্য। আর এ নকল প্রসাধনী ব্যবহারের দায়ে গুলশানের ফারজানা শাকিল ও পারসোনা এবং বনানীর সাজাইকে ৩১ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়া ধানমন্ডির পারসোনা বিউটি পার্লারকে ৬ লাখ টাকা জরিমানা করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

বাহারি সাজ আর চাকচিক্য দেখে গ্রাহক ধরেই নেন, তাদের রূপসজ্জায় ব্যবহৃত হচ্ছে উন্নতমানের সব পণ্য। কিন্তু আসল চিত্র একেবারেই ভিন্ন। অবাধে ব্যবহার করা হচ্ছে চকবাজার এবং কামরাঙ্গীরচরে তৈরি নকল ও মেয়াদোত্তীর্ণ পণ্য।

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) র‌্যাব অভিযান চালায় নকল ও মেয়াদোর্ত্তীণ প্রসাধনী ব্যবহার করায় রাজধানীর গুলশান-১ এ ফারজানা শাকিল’স ও পারসোনা বিউটি পার্লারকে ৩০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় বনানীর সাজাই বিউটি পার্লারকেও ১ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

র‌্যাব জানায়, স্বনামধন্য এই প্রতিষ্ঠানটি দীর্ঘদিন ধরেই নকল পণ্য ব্যবহার করে আসছিল।

র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলম বলেন, এই প্রতিষ্ঠানের ৮০ শতাংশের ওপরে মেয়াদ নেই। এছাড়া এখানে যা ব্যবহার করা হচ্ছে সব নকল এবং নিম্নমানের পণ্য। কোনো ভালো পণ্য পাইনি। যা পেয়েছি নিম্নমানের এবং নকল পণ্য। তারও আবার মেয়াদ নেই।

বিএসটিআই জানায়, এ ধরনের পণ্য ব্যবহারে ত্বকের ক্ষতির পাশাপাশি দীর্ঘমেয়াদে নানা রোগও হতে পারে।

এছাড়া ধানমন্ডিতে পারসোনা বিউটি পার্লারে অভিযান চালিয়ে বেশ কিছু স্টিকারবিহীন বিদেশি পণ্য উদ্ধার করে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। প্রতিষ্ঠানটিকে ৬ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক