বিস্তারিত

জেনারেল কাসেম সুলাইমানির জানাযায় লাখ লাখ মানুষের ঢল

ছবি : সংগ্রহকৃত

মার্কিন হামলায় নিহত ইরানি জেনারেল কাসেম সুলাইমানির জানাযায় লাখ লাখ মানুষের ঢল। বুকফাটা আর্তনাদে প্রিয় জেনারেলকে শেষ বিদায় জানান ইরানের মানুষ। জানাজায় নিজের আবেগ ধরে রাখতে পারেননি সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি। আর পিতৃহত্যার কঠিন প্রতিশোধের হুঁশিয়ারি দেন সুলাইমানির কন্যা।

সুলাইমানির কন্যা জেইনাব সুলাইমানি বলেন, ট্রাম্প যদি মনে করেন আমার বাবাকে হত্যার মধ্য দিয়ে সব শেষ, তবে সে ভুল করছে। উপযুক্ত জবাব পাবে তারা। ইসরায়েল আর যুক্তরাষ্ট্রের জন্য সামনে কালো দিন অপেক্ষা করছে।

মধ্যপ্রাচ্য থেকে মার্কিন বাহিনীকে পুরোপুরি হটানোর হুঁশিয়ারী দিয়েছে কুদস ফোর্সের নতুন প্রধান। আর বদলা নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে, লেবাননের শিয়া গোষ্ঠী হেজবুল্লাহও।

লেবানন হেজবুল্লাহ প্রধান শেখ হাসান নাসরাল্লাহ বলেন, মধ্যপ্রাচ্যে ট্রাম্প যা করছে তার শাস্তি তাকে পেতেই হবে। এখান থেকে মার্কিন সেনা আর কর্মকর্তাদের লাশ ফেরত পাঠানো হবে যুক্তরাষ্ট্রে।

ইরানি জেনারেলকে হত্যার প্রতিবাদে আজও বিক্ষোভ হয়েছে দেশে দেশে। তুরস্কে মার্কিন দূতাবাস ঘেরাও করেন বিক্ষোভকারীরা।

চীন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মুখপাত্র গেং চুয়ং বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের অতিরিক্ত বলপ্রয়োগের মানসিকতা পরিহার করা উচিত। মধ্যপ্রাচ্যের চলমান পরিস্থিতিতে আলোচনার মাধ্যমে সংকট সমাধানের আহ্বান জানায় বেইজিং।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে বলেন, কূটনৈতিক আলোচনার মধ্য দিয়ে চলমান সমস্যার সমাধান না হলে, পুরো বিশ্বেই অশান্তি ছড়াবে। দুদেশের উচিত সমাধানের পথে হাটা।

ইরানি জেনারেল হত্যার জেরে দেশ থেকে মার্কিনসহ বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে ইরাক। এ ঘটনায় দেশটির ওপর অবরোধ আরোপের হুঁশিয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের। সব পক্ষকে সংযত আচরণের আহ্বান জানিয়েছে ব্রিটেন, জার্মানি ও ফ্রান্স।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক