বিস্তারিত

কোয়ারেন্টিনে থাকা প্রবাসীকে দেখতে দ্বিতীয় দিনের মতো ভিড়

ছবি : সংগ্রহকৃত

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকা অস্ট্রেলিয়াপ্রবাসী দেখতে টানা দ্বিতীয় দিনের মতো তার বাড়ির ফটকে ভিড় করছেন উৎসুকরা। গতকাল বৃহস্পতিবার ওই প্রবাসীর বাড়ির সামনে স্বজন ও এলাকাবাসী তাঁকে দেখতে ভিড় করেন। আজ শুক্রবারও বাড়ির সামনে কৌতূহলী মানুষ ওই প্রবাসীকে দেখতে ভিড় জমান।

গতকাল নবীগঞ্জ উপজেলায় খোঁজ নিয়ে অস্ট্রেলিয়া ও ইউরোপের কয়েকটি দেশ থেকে আসা পাঁচ প্রবাসীর সন্ধান পাওয়া যায়। খবর পেয়ে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার পাল তাদের হোম কোয়ারেন্টিনে (নিজ বাসায় আলাদা কক্ষে) থাকার অনুরোধ করেন।

এক স্থানীয় বলেন, তিনি অনেক দিন পর দেশে এসেছেন। বিমানবন্দর থেকে চিকিৎসক তাকে ঘরে থাকতে বলেছে। কিন্তু, তিনি তো রোগী না, সুস্থ আছে। তাই তাকে দেখতে গিয়েছিলাম।

এক স্থানীয় বলেন, ‘কোয়ারেন্টিন’ জিনিসটা কী এ নিয়ে মানুষের কৌতূহল। কোয়ারেন্টিনে থাকার সময় কীভাবে মানুষ সময় কাটায়, তা দেখার জন্য উৎসুক এলাকাবাসী ভিড় করেন।

শুধু অস্ট্রেলিয়াপ্রবাসী নয়, ইউরোপের দেশ থেকে আসা প্রবাসীদের বাড়িতেও উৎসুক জনতা ভিড় করছেন। নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা ভাইরাসের সতর্কতায় চারটি কেবিন প্রস্তুত থাকলেও সেখানে কোনো প্রবাসীকে রাখা হয়নি।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, সারা বিশ্বে করোনাভাইরাস নামে একটি রোগ মহামারি আকার ধারণ করেছে।
ইউরোপের বিভিন্ন দেশে এখন এই রোগের প্রকোপ বেশি। তাই নবীগঞ্জে ইউরোপ ফেরত চার প্রবাসীসহ অস্ট্রেলিয়াপ্রবাসীকে হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে বলা হয়েছে। প্রশাসনিকভাবে তাদের ওপর নজরদারি করা হচ্ছে। তাদের মধ্যে কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে সন্দেহ করা হলে কার্যকরী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক