বিস্তারিত

করোনাভাইরাস আতঙ্ক, অবরুদ্ধ হয়ে পড়ছে চীনা

ছবি : সংগ্রহকৃত

‘করোনাভাইরাসে’ আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে চীনে। দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব বলছে, রবিবার পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৬। গত ২৪ ঘণ্টায় ফের নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের। তাদের মধ্যে ১৩ জনই হুবেই প্রদেশের। শুধুমাত্র হুবেই প্রদেশেই এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৫২ জনের।

অন্যদিকে, সাংহাইয়ে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এক জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যাটাও বাড়ছে এই সংখ্যাটা প্রায় দু’হাজার। ইতিমধ্যেই এই ভাইরাস চীনের গণ্ডি ছাড়িয়ে পৌঁছে গেছে থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, সিঙ্গাপুর, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, তাইওয়ান, নেপাল, মালয়েশিয়ায়। সংক্রমণ ছড়িয়েছে ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া এবং আমেরিকাতেও। যে গতিতে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে চীনে, তা সামাল দিতে রীতিমতো চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হচ্ছে সরকারকে।

প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ‘গম্ভীর পরিস্থিতি’ আখ্যা দিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। কীভাবে এই পরিস্থিতি সামাল দেয়া যায় প্রশাসনের শীর্ষকর্তাদের সঙ্গে তা নিয়ে জরুরি বৈঠকও করেছেন শি জিনপিং।

চীন প্রশাসন সূত্রে খবর, সংক্রমণ যাতে নতুন করে দেশের অন্য প্রান্তে ছড়িয়ে না পড়ে তার জন্য ছোট ছোট দলে বিভিন্ন মেডিকেল টিম গঠন করে নজরদারি চালানো হচ্ছে। সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা উহান ও হুবেই প্রদেশে। আরও বেশ কয়েকটি শহরেও দ্রুত গতিতে সংক্রমিত হচ্ছে এই ভাইরাস। ইতিমধ্যেই ১৮টি শহরকে নজরবন্দি করেছে চীন।

চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, উহানের এই পরিস্থিতি সামাল দিতে ১২৩০ জনের ৬টি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। হুবেই প্রদেশে ছয় দিনের মধ্যে হাজার শয্যার হাসপাতাল তৈরি করে আক্রান্তদের চিকিৎসা চালানো হচ্ছে। হুবেই প্রদেশে আক্রান্তের সংখ্যা ৬৫৮। তাদের মধ্যে ৫৭ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক