বিস্তারিত

এশিয়া মহাদেশে ছড়াচ্ছে ‘করোনাভাইরাস’

ছবি : সংগ্রহকৃত

বিশ্বব্যাপী নতুন প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসটিতে আক্রান্তের সংখ্যা দুই হাজার ছাড়িয়ে গেছে। আর এতে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৫৬ জন। রোববার প্রকাশিত নতুন তথ্য থেকে এমন তথ্য জানা গেছে।

মরণব্যাধি এই ভাইরাসের এখন পর্যন্ত কোনো ওষুধ বা ভ্যাকসিন আবিষ্কার হয়নি। তাই সচেতনতাই হচ্ছে এই রোগ থেকে বাঁচার অন্যতম উপায়।

একজন মানুষের শরীর থেকেও এই ভাইরাস অন্য মানুষের শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে। প্রথমে মনে করা হয়েছিল ভাইরাসটি সামুদ্রিক খাবার থেকে ছড়াচ্ছে।

তবে চীনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে একজন মানুষের শরীর থেকেও এই ভাইরাস অন্য মানুষের শরীরে ছড়িয়ে পড়তে পারে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সম্প্রতি মারাত্মক এই ভাইরাস সম্পর্কে প্রথম রিপোর্ট জমা দিয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড ও জাপানেও ক্রমে ছড়াচ্ছে করোনাভাইরাস। তবে এই ভাইরাস সম্পর্কে অনেকেই জানেন না।

করোনাভাইরাস এমন এক ভাইরাস, যা সাধারণ ফ্লু বা ঠাণ্ডা লাগার মতোই প্রথমে আক্রমণ করে ফুসফুসে। এই ভাইরাস থেকে শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা দেখা দেয়। ধীরে ধীরে তা মারাত্মক আকার ধারণ করে। যার থেকে মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে।

করোনাভাইরাসের কিছু প্রাথমিক লক্ষণ রয়েছে। তবে এই লক্ষণগুলো খুবই সাধারণ। সর্দি-কাশি, মাথাব্যথা, নাক দিয়ে পানি পড়া, গলা ব্যথা, শ্বাসকষ্ট ও জ্বর হয়ে থাকে।
১. এই ভাইরাস একজনের থেকে আরেকজনের মধ্যে ছড়ায়।

২. শারীরিক ঘনিষ্ঠতা এমনকি করমর্দন থেকেও এই রোগ ছড়াতে পারে।

৩. রোগী জিনিস ধরার পর ভালো করে হাত না ধুয়ে চোখ, মুখ, ও নাকে হাত দিলে এই রোগ ছড়াতে পারে।

৪. হাঁচি-কাশি থেকেও এই রোগ ছড়াতে পারে।

কীভাবে প্রতিরোধ করবেন?

১. রোগী কাছ থেকে আসার পর ভালো করে হাত ধুতে হবে।

২. নাক-মুখ ঢেকে হাঁচুন, কাশুন।

৩. ডিম, মাংস ভালো করে রান্না করুন। রোগীর থেকে দূরে থাকুন।

৪. নিয়মিত হাত ধুয়ে পরিচ্ছন্ন রাখুন

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক