বিস্তারিত

অতিরিক্ত হজ ফ্লাইট পরিচালনার সুযোগ দেবে না সৌদি

ছবি : সংগ্রহকৃত

১৪ জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে হজ ফ্লাইট। ধর্ম মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ বিমান ও হজ এজেন্টদের সংগঠন- হাবসহ সব পক্ষের প্রচেষ্টার পরেও প্রতিবছরই বিড়ম্বনায় পড়তে হয় হজ গমনেচ্ছুদের। গেল বছরও নানা সমস্যায় যাত্রী সংকটে বাতিল হয় বিমানের ২৪টি হজ ফ্লাইট। যদিও পরে আবেদনের প্রেক্ষিতে বাড়তি ফ্লাইট পরিচালনার সুযোগ দেয় সৌদি সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ। তবে এবার সংস্থাটি জানিয়ে দিয়েছে কোনো ফ্লাইট বাতিল হলে অতিরিক্ত কোন স্লট দেয়া হবে না।

বিমান বাংলাদেশ এয়ালাইন্সের কোনো হজ ফ্লাইট বাতিল হলে এবার অতিরিক্ত ফ্লাইট পরিচালনার সুযোগ দেবে না সৌদি সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ। এ অবস্থায় সৌদি আরবে বাড়িভাড়া ও মুয়াল্লেম নিয়োগসহ সব প্রক্রিয়া যথা সময়ে সম্পন্ন করার আহবান জানিয়েছে বাংলাদেশ বিমান। অন্যথায় যাত্রীর অভাবে ফ্লাইট বাতিল হলে বিমান যেমন ক্ষতিগ্রস্ত হবে, তেমনি অনিশ্চয়তায় পড়বে হজ যাত্রা। তবে প্রস্তুতি ভালো থাকায় এবার ফ্লাইট বাতিলের কোন ঘটনা ঘটবে না বলে প্রত্যাশা ধর্ম মন্ত্রণালয় ও হাবের।

এরই মধ্যে বিমানের ৬০ ভাগ টিকিট বিক্রি হয়েছে। শুরু হয়েছে ভিসা দেয়াও। এবার বিমানের টিকিট আগে কাটার নিয়ম করায় কোন যাত্রী সংকট হবে না বলে প্রত্যাশা হজ অফিসের।

এবার মোট ১লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন হজ যাত্রীর মধ্যে অর্ধেক পরিবহন করবে বিমান বাংলাদেশ। এ জন্য ১৫৫টি হজ ফ্লাইট পরিচালনা করবে সংস্থাটি। পাশাপাশি নিয়মিত ফ্লাইটেও যাবেন হজ যাত্রী। প্রথমবারের মতো ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে সরাসরি মদিনাতে ৮টি ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক