বিস্তারিত

৬৭ জন আরোহী নিয়ে নেপালে ’ইউএস বাংলার’ বিমান বিধ্বস্ত

ছবি : সংগ্রহকৃত

নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। ৭৮ আসনের প্লেনটিতে ৬৭ জন আরোহী ছিল। বেশিরভাগ যাত্রীরই প্রাণহানির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ঢাকা থেকে যাওয়া প্লেনটি সোমবার (১২ মার্চ) স্থানীয় সময় দুপুর ২টা ২০ মিনিটে পার্বত্য শহর কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণকালে এ দুর্ঘটনার কবলে পড়ে।

স্থানীয় একটি সংবাদমাধ্যমের খবর, প্লেনটি অবতরণের সময় বিমানবন্দরের পূর্ব পাশে আছড়ে পড়ে। দুর্ঘটনাকবলিত প্লেনের আগুন নেভাতে ঘটনাস্থলে ছুটে গেছেন দমকলকর্মী ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

নেপালের পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব সুরেশ আচার্য্য জানিয়েছেন, দুর্ঘটনাস্থল থেকে ১৭ জনকে উদ্ধার করে নিকটস্থ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মুখপাত্র প্রেম নাথ ঠাকুর জানান, প্লেনটি অবতরণের সময় তীব্র ঝাঁকুনি খেয়ে দিক বদলে পূর্ব পাশের একটি ফুটবল মাঠে আছড়ে পড়ে। এসময় প্লেনটিতে আগুন ধরে যায়। ঘটনাস্থলে বিমানবন্দরের উদ্ধারকর্মী ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা তৎপরতা চালাচ্ছেন।

ঢাকায় ইউএস বাংলার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইমরান আসিফ বলেন, ‘আমরা খবর পেয়েছি। বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছি।’

ত্রিভুবন বিমানবন্দরের পূর্ব পাশে দুর্ঘটনা কবলিত উড়োজাহাজ।সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, প্লেনটি বোম্বার্ডিয়ার ড্যাশ ৮ কিউ৪০০ মডেলের এস২-এজিইউ। বাইরে পাখাবিশিষ্ট এ ধরনের প্লেনে সর্বোচ্চ ৭৮টি আসন থাকে।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক