বিস্তারিত

হেফাজতের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা নূরুল ইসলাম জিহাদী

ছবি : সংগ্রহকৃত

নূর হোসাইন কাসেমীর মৃত্যুতে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব পদ শূন্য হওয়ায় ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে মাওলানা নূরুল ইসলাম জিহাদীকে। মাওলানা জিহাদী এর আগে হেফাজতে ইসলামের সিনিয়র নায়েবে আমির ছিলেন। একইসঙ্গে সংগঠনটির ঢাকা মহানগরীর সেক্রেটারি করা হয়েছে মাওলানা মামুনুল হককে।

আজ শনিবার সন্ধ্যায় হেফাজতে ইসলামের প্রচার সম্পাদক মাওলানা জাকারিয়া নোমান ফয়জী গণমাধ্যমকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

হেফাজতে ইসলামের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত বুধবার চট্টগামের হাটহাজারী মাদ্রাসায় সংগঠনের এক বিশেষ বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা শাহ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী।

বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী, উপদেষ্টা মাওলানা নোমান ফয়জী, নায়েবে আমির মাওলানা তাজুল ইসলাম, মাওলানা মুহাম্মদ ইয়াহইয়া, মুফতি জসিম উদ্দিন, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা জুনাইদ আল হাবীব, মাওলানা মামুনুল হক, মাওলানা লোকমান হাকীম, মাওলানা নাসির উদ্দিন মুনির, মাওলানা হাবীবুল্লাহ আজাদী, মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী, মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবী প্রমুখ।

বৈঠকে সংগঠনের নায়েবে আমির মাওলানা আতাউল্লাহকে সিনিয়র নায়েবে আমির, সহকারী মহাসচিব মাওলানা ফজলুল করীম কাসেমী, মাওলানা শফিক উদ্দীন, মাওলানা হাবীবুল্লাহ মিয়াজী ও মাওলানা খালেদ সাইফুল্লাহ আইয়ুবীকে যুগ্ম মহাসচিব হিসেবে মনোনীত করা হয়। এ ছাড়া সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির পরিধি আরো বাড়িয়ে ২০১ সদস্যবিশিষ্ট করা হয়।

হেফাজতে ইসলাম আরো জানায়, মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীবকে সভাপতি ও মাওলানা মামুনুল হককে সেক্রেটারি করে ঢাকা মহানগর কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এ ছাড়া মাওলানা হাফেজ তাজুল ইসলামকে সভাপতি ও মাওলানা লোকমান হাকীমকে সেক্রেটারি করে চট্টগ্রাম মহানগর কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে।

গত ১৩ ডিসেম্বর হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব ও ঢাকার জামিয়া মাদানিয়া বারিধারা মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল নূর হোসাইন কাসেমী মারা যান। এরপর থেকেই পদটি খালি ছিল। এর প্রায় এক মাস আগে গত ১৫ নভেম্বর জুনায়েদ বাবুনগরীকে আমির এবং নূর হোসাইন কাসেমীকে মহাসচিব করে হেফাজতে ইসলামের নতুন কমিটি গঠন করা হয়।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক