বিস্তারিত

‘হিস্টিরিয়া’ হলো মানসিক রোগ

ছবি : সংগ্রহকৃত

হিস্টিরিয়া হলো একটি মানসিক রোগ, যেখানে আবেগের বৈকল্য ঘটে এবং রোগী অতিরিক্ত প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে। সাধারণত বেশি মানুষের উপস্থিতিতে রোগী সবার মনোযোগ আকর্ষণের চেষ্টা করে।যাদের হিস্টিরিয়া রয়েছে তারা সাধারণত কোনো না কোনো ফোবিয়ায় আক্রান্ত, অনিয়মতান্ত্রিক জীবন-যাপন ও মানসিক অবসাদগ্রস্ত থাকেন।

উপসর্গ:-
সাধারণত রোগী আচরণগত নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে এবং নাটকীয়ভাবে চিৎকার করতে থাকে।
রোগী অতিরিক্ত চেঁচামেচি করে, হাত-পা ছোড়াছুড়ি করে এবং নিজের কাপড়চোপড় ও চুল ছিঁড়ে ফেলে।
চিৎকার করে কাঁদে।
রোগী কখনো কখনো উন্মত্ত হয়ে মেঝেতে গড়াগড়ি করে।
রোগী জোরে জোরে শ্বাস নিতে থাকে।
রোগী এমনভাবে হাত-পা ছোড়ে যে সেটাকে ভান মনে হতে পারে।
রোগীর পাশে কেউ উপস্থিত না থাকলে রোগী শান্ত থাকে।
অনেক সময় রোগী অজ্ঞান হয়ে যায়।
রোগীর শ্বাসকষ্ট হয়, দাঁতে দাঁতে লেগে যায়।
রোগী বাকরুদ্ধ হয়।

কেন হয়:-

হিস্টিরিয়ার বিভিন্ন কারণগুলো হচ্ছে –
স্ট্রেস
যৌন নিপীড়ন
অলসতা
পরিবারের কারও থেকে থাকলে
নার্ভাসনেস
আবেগের ত্রুটিপূর্ণ চর্চা
মেন্টাল স্ট্রেইন
ভয়
দুশ্চিন্তা
ডিপ্রেশন
ট্রুমাটিজম
হস্তমৈথুন
দীর্ঘকালীন অসুস্থতা
ব্রেন টিউমার
স্মৃতিভ্রংশতা বা ডিমেনশিয়া ইত্যাদি

অভিজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়ার পাশাপাশি কিছু ঘরোয়া ট্রিটমেন্ট নিতে পারেন।

ঘরোয়া প্রতিকার
যাদের হিস্টিরিয়া রয়েছে তাদের ডেইলি ডায়েটের দিকে নজর দিতে হবে। তিনবেলা খাবারেই আপেল, আঙুর, কমলা, আনারস, পেঁপে ইত্যাদি ফল রাখুন। টানা এক মাসের জন্য প্রচুর পরিমাণে দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার খান।
একমাস সকালে খালি পেটে এক কাপ লেটুসপাতার রস ও এক চা চামচ আমলকির রস খান। যাদের হিস্টিরিয়া রয়েছে তারা প্রতিদিন এক টেবিল চামচ করে মধু খান।
প্রতিদিন পর্যাপ্ত ঘুম ও ব্যায়াম হিস্টিরিয়া সারিয়ে তুলতে সহায়ক।
লাউ পাতলা পাতলা করে কেটে হিস্টিরিয়া আক্রান্ত ব্যক্তির কপালে রেখে দিন। এটি খুব ভালো ট্রিটমেন্ট।

সংবাদের ধরন : স্বাস্থ্য কথা নিউজ : নিউজ ডেস্ক