বিস্তারিত

সৌদি রাজপ্রাসাদের কাছে ড্রোন ভূপাতিত

ছবি : সংগ্রহকৃত

bd news,bdnews,bdnews24,bdnews24 bangla,bd news 24,bangla news,bangla,bangla news paper,all bangla newspaper,bangladesh newspapers,all bangla newspaper,bangla news paper,bangladesh newspapers,all bangla newspapers,bd news 24,bangla news today,bd news paper,all bangla news paper,bangladeshi newspaper,all bangla newspaper,all bangla newspapers,bdnews,bangla news,bangla newspaper,bangla news paper,bangla news 24,banglanews,bd news 24,bangla news today,bd news paper,all bangla news paper,bangladeshi newspaper,all bangla newspaper,all bangla newspapers

সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদের রাজপ্রাসাদের কাছে একটি ড্রোন ভূপাতিত করা হয়েছে। গতকাল শনিবার রাতে এ ঘটনার পর রিয়াদ পুলিশ ধারণা করছে, এটি দূরনিয়ন্ত্রিত একটি খেলনা ড্রোন। আল-খাজুমা পুলিশ স্টেশনের এক কর্মকর্তা সেটি জব্দ করেছেন।

এ ঘটনা তদন্তে পুলিশ বিভাগের পক্ষ থেকে কাজ শুরু হয়েছে। এতে আরো বলা হয়েছে, স্থানীয় সময় রাত ৭টা ৫০ মিনিটে এ ঘটনা ঘটে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। তবে কারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে আর কেনই বা ঘটেছে, এতে বিস্তারিত কিছু বলা হয়নি।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এক ভিডিওতে দেখা যায়, ওই এলাকায় সামরিক বাহিনীর যানবাহন থেকে আলোর ঝলকানি বের হচ্ছে এবং সঙ্গে প্রচণ্ড গোলাগুলির শব্দ। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে, ড্রোনটি ভূপাতিত করার জন্য গুলি ছোড়া হয়। এ ঘটনাকে ঘিরে ‘সন্ত্রাসবাদী হামলা, এমনকি অভ্যুত্থানের’ গুজবও ছড়িয়ে পড়ে বলে রাশিয়ার সরকার নিয়ন্ত্রিত বার্তা সংস্থা আরটির এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

গত বছরের জুনে নিজের চাচাতো ভাইকে যুবরাজের পদ থেকে সরিয়ে দিলে আলোচনায় আসেন ৩১ বছর বয়সী মুহাম্মদ বিন সালমান। এর পর থেকেই সৌদি আরবে নানা অর্থনৈতিক ও সংস্কার কার্যক্রম চালাচ্ছেন যুবরাজ। একই সঙ্গে দুর্নীতিবিরোধী অভিযান চালিয়ে নানা আলোচনার জন্ম দেন তিনি।

গত নভেম্বরে সৌদি আরবে দুর্নীতিবিরোধী অভিযানে দুই শতাধিক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর মধ্যে প্রিন্স, বর্তমান ও সাবেক মন্ত্রী এবং ধনকুবের ব্যবসায়ীরা ছিলেন। সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালনা করা হয় বলে সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়। অভিযানে গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে প্রায় ১০০ বিলিয়ন ডলারের দুর্নীতি ও আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়। যদিও পরে ধীরে ধীরে সবাইকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

 

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক