বিস্তারিত

সেমিফাইনালে ইংল্যান্ড

bdnews24 ছবি : সংগ্রহকৃত

১৫ রানেই চার উইকেট হারানোর পর অনেকেই হয়তো ছেড়ে দিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কার জয়ের আশা। শেষপর্যন্ত সত্যিই হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছে লঙ্কানদের। তবে শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের লড়াকু ব্যাটিং মন জয় করে নিয়েছে ক্রিকেটপ্রেমীদের। শ্রীলঙ্কা শেষপর্যন্ত ম্যাচটা হেরেছে মাত্র ১০ রানে। ঘামঝরানো এই জয় দিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে ইংল্যান্ড। ৫৩ বলে ৭৩ রানের লড়াকু ইনিংস খেলে শেষপর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন ম্যাথিউস।

১৭২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে প্রথম তিন ওভারের মধ্যে মাত্র ১৫ রান সংগ্রহ করতেই চারটি উইকেট হারিয়েছিল শ্রীলঙ্কা। শুরুতেই এমন ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়ার পর শ্রীলঙ্কার হারটাই হয়তো অবধারিত বলে ধরে নিয়েছিলেন অনেকে। কিন্তু চাপের মুখে পড়লেও দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছেন লঙ্কান ক্রিকেটাররা। পঞ্চম উইকেটে ৮০ রানের দারুণ জুটি গড়েন অধিনায়ক ম্যাথিউস ও চামারা কাপুগেদারা। ১৩তম ওভারে এই জুটি ভেঙে ইংল্যান্ড শিবিরে স্বস্তি ফেরান লিয়াম প্লাঙ্কেট। ৩০ রান করে ফিরে যান কাপুগেদারা। তবে ঝড়ো ব্যাটিং চালিয়েই গেছেন ম্যাথিউস ও পেরেরা। ১৭তম ওভারে আউট হওয়ার আগে ১১ বলে ২০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে দলকে জয়ের পথে আরেকটু এগিয়ে দেন পেরেরা। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান শেষপর্যন্ত উইকেটে থাকতে পারলে ম্যাচের ফলাফল হয়তো অন্যরকমও হতে পারত। পেরেরা আউট হওয়ার পর দাশুন সানাকাও ৯ বলে ১৫ রানের ইনিংস খেলে আশা জাগিয়েছিলেন লঙ্কান শিবিরে। কিন্তু ১৯তম ওভারে সানাকা ও রঙ্গনা হেরাথের উইকেট তুলে নিয়ে ইংল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করে ফেলেন ক্রিস জর্ডান।

জর্ডান পুরো ম্যাচেই করেছেন দারুণ বোলিং। চার ওভার বল করে মাত্র ২৮ রানের বিনিময়ে নিয়েছেন চারটি উইকেট। দুটি উইকেট গেছে আরেক ওপেনার ডেভিড উইলির ঝুলিতে।

সংবাদের ধরন : খেলা-ধুলা নিউজ : মো : মাহবুব রানা