বিস্তারিত

সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে মাস্ক ছাড়া সার্ভিস নয়

ছবি : সংগ্রহকৃত

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলায় এখন থেকে মাস্ক ছাড়া আসলে কাউকে সরকারি ও বেসরকারি অফিসগুলোতে সেবা দেওয়া হবে না। এ জন্য ‘নো মাস্ক, নো সার্ভিস’ নীতি বাস্তবায়ন করা হবে।

মাস্ক ছাড়া কোনো সরকারি বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সেবা না দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। আজ রোববার মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর সচিবালয়ে সীমিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব ড. খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম এ কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আজ মন্ত্রিসভার ভার্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। প্রধানমন্ত্রী গণভবন থেকে এবং মন্ত্রিপরিষদের অন্য সদস্যরা সচিবালয় থেকে ভার্চুয়াল এই সভায় যোগ দেন।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব ড. খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ‘চারদিকে ম্যাসিভ ইনস্ট্রাকশন দেওয়া হয়েছে, সব লেভেলেই। আমাদের যতগুলো ইনস্টিটিউশন আছে, লোকাল বা অর্গানাইজেশনাল প্রতিষ্ঠান সব জায়গায় ইনস্ট্রাকশন দিয়েছি, নো মাস্ক নো সার্ভিস। আমরা সব প্রতিষ্ঠান, হাটবাজার, শপিংমল, স্কুল, সামাজিক বা ধর্মীয় সম্মেলনে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। এটা একেবারেই নির্দেশনা দিয়ে দিয়েছি। গত মিটিংয়েও বলেছিলাম, আমরা ডিভিশনাল কমিশনারদের অলরেডি ইনস্ট্রাকশন দিয়ে দিয়েছি। সব সরকারি-বেসরকারি অফিসের বাইরে বড় একটা পোস্টার দেওয়া থাকবে, মাস্ক ছাড়া প্রবেশ করতে পারবেন না এবং মাস্ক ছাড়া কেউ সার্ভিস ব্যবহার করতে পারবেন না।’

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ইসলামিক ফাউন্ডেশন আমাদের সব মসজিদে অন্তত দুবার নামাজের পর মাস্ক পরা রাষ্ট্রীয় আদেশ, সেটি প্রচার করতে হবে। আলেম-ওলামাদের সঙ্গেও কথা বলেছি, ওনারাও সেটার সঙ্গে একমত।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক