বিস্তারিত

শ্রীলেখার অভিযোগে মুখ খুললেন ঋতুপর্ণা

ছবি : সংগ্রহকৃত

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর স্বজনপ্রীতি নিয়ে উত্তাল বলিউড। সারা ভারতের শোবিজ পাড়া যখন উত্তাল পরিবারতন্ত্র ও ইমেজতন্ত্রের বিরুদ্ধে তখন টলিউডে সেই আগুনে ঘি ঢাললেন শ্রীলেখা মিত্র। দিন দুই আগে ইউটিউবে একটি ভিডিও পোস্ট করেন শ্রীলেখা। সেখানে তিনি অভিযোগ তোলেন টলিউডেও স্বজনপ্রীতি রয়েছে। এখানেও শিল্পীর কাজ পাওয়া বা না পাওয়া নির্ভর করে সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত সম্পর্কের ওপর।

তিনি সরাসরি অভিযোগ এনেছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের বিরুদ্ধে। টলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিটে স্বজনপোষণ এবং প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের বিরুদ্ধে শ্রীলেখা মিত্র যে অভিযোগ করেছেন তা নিয়ে এরই মধ্যে মুখ খুলেছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত।

শুধুমাত্র প্রসেনজিতের সঙ্গে জুটি বেঁধেই কাজের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন ঋতুপর্ণা। তিনি বলেন, ২০০১-২০১৫ সাল পর্যন্ত প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা জুটির আর কোনো ছবি হয়নি। তারপরেও তিনি ইন্ডাস্ট্রিতে বিভিন্ন ছবি করে টিকিয়ে রাখতে পেরেছেন জানান ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত।

এদিকে ‘অন্নদাতা’ ছবি নিয়ে শ্রীলেখা যে অভিযোগ করেছেন সে প্রসঙ্গে মুখ খুলেছেন ছবির প্রযোজক অশোক ধানুকাও। তার কথায়, আমি ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে প্রথম ফোন করেছিলাম ‘অন্নাদাতা’ ছবির জন্য। তবে ঋতুপর্ণা সেসময় আমেরিকাতে ছিলেন, তাই আমি শ্রীলেখা মিত্রকে নিয়েছিলাম। তবে সেসময় যাদের দেখতে চাইতো দর্শক, তাদেরকেই সাধারণত সিনেমায় কাস্ট করা হতো।

আর শ্রীলেখা ‘অন্নদাতা’র আগে কোনো ছবিতে নায়িকা হননি। তাই আমি শ্রীলেখার উপর ভরসা করতে পারিনি। আসলে প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণার জুটির ছবি চলতো, তাই এই জুটিকে নেওয়া হতো। এটা সিনেমা ব্যবসায়ের বড় মুলধন। প্রসেনজি কোনোদিনই একে নিতে হবে, ওকে নিতে হবে বলে ঠিক করে দেননি।

তবে শ্রীলেখার অভিযোগ নিয়ে এখনই কোনো প্রতিক্রিয়া দিতে চাননা বলে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন।

সংবাদের ধরন : বিনোদন নিউজ : নিউজ ডেস্ক