বিস্তারিত

শ্রীদেবীর সম্পত্তির পরিমাণ ২১০ কোটি টাকা

ছবি : সংগ্রহকৃত

ভারতীয় সিনেমা জগতের উজ্জ্বল নক্ষত্র ছিলেন শ্রীদেবী। তার অকাল-প্রয়াণে স্তব্ধ ভারত। দুবাইয়ে এক অনুষ্ঠানে গিয়ে শনিবার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে আকস্মিক মৃত্যু হয় কিংবদন্তি অভিনেত্রীর। বর্ণময় ক্যারিয়ারে করেছেন প্রায় তিনশ’র ওপর ছবি।

রুপালি পর্দা থেকে ‘অবসর’ নিলেও প্রত্যাবর্তন ঘটিয়েছিলেন কয়েকবছর আগে ‘ইংলিশ ভিংলিশ’ ছবির মাধ্যমে। হিন্দি ছাড়াও শ্রীদেবীকে দেখা গিয়েছে তামিল, তেলুগু, মালয়ালম, কানাড়া ছবিতে। নিজের সময়ে একসময় তিনি ছিলেন ‘হায়েস্ট পেড’ অভিনেত্রী। পুরুষতান্ত্রিক বলিউডে নারীদের ‘অধিকার’ ছিনিয়ে নেওয়ার লড়াইয়েও ‘সামিল’ রূপসী এই অভিনেত্রী। তাকে বলা হতো নায়িকাদের মধ্যে ‘অমিতাভ বচ্চন’। সুতরাং বলাই যায়, তার ব্যক্তিগত সম্পত্তির পরিমাণ কিন্তু আকাশছোঁয়া!

স্বামী বনি কাপুর ও শ্রীদেবীর সম্পত্তির পরিমাণ ৩৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। টাকার হিসেবে যার পরিমাণ ২১০ কোটি টাকা। শ্রীদেবী নিজে যেমন ডাকসাইটে অভিনেত্রী হিসেবে তিন দশক চুটিয়ে রাজত্ব করেছেন, তেমনই বনি কাপুর বলিউডের বিখ্যাত প্রযোজক। দু’জনের সম্পত্তি তাই এমন বিপুল হওয়া আশ্চর্যের কিছু নয়। এত সম্পত্তি স্বাভাবিকভাবেই পাবেন মেয়েরা, কিন্তু সেই সম্পত্তি কোনওদিন মায়ের অভাব পূরণ করতে পারবে না।

রবিবার ভোররাতে পৃথিবী ছেড়ে চির বিদায় নিয়েছেন কিংবদন্তি অভিনেত্রী শ্রীদেবী। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে। কিন্তু মৃত্যুর পূর্বে ৪৮ ঘণ্টা দেখা যায়নি শ্রীদেবীকে। এসময় তিনি হোটেলে ছিলেন বলে দাবি করেছে তার পরিবার।

জানা গিয়েছে, হার্ট অ্যাটাকের সময়ে বাথরুমে ছিলেন শ্রীদেবী। ফলে কাউকে ডাকতেও পারেননি। কারণ দরজা ভিতর থেকেই বন্ধ ছিল। বনি কাপুর যতক্ষণে ঘুম থেকে উঠে স্ত্রীর খোঁজ করেছেন, ততক্ষণে শ্রীদেবীর দেহ নিথর হয়ে গিয়েছে। কিন্তু শ্রীদেবীর মৃত্যুতে শোকাহত দেবর সঞ্জয় কাপুর জানিয়েছেন, শ্রীদেবীর কোনও হার্ট অ্যাটাকের ইতিহাস ছিল না। হৃদরোগজনিত কোনও সমস্যাও ছিল না তাঁর।

এদিকে মৃত্যুর পরে দুবাইতেই শ্রীদেবীর দেহের ময়নাতদন্ত করা হয়েছে। তার মৃতদেহ আনার জন্য মুম্বাই থেকে শিল্পপতি অনিল অম্বানির চার্টার্ড বিমান রওনা দিয়েছে। সোমবার শ্রীদেবীর মৃতদেহ নিয়ে সেই বিমানের মুম্বাই ফেরার কথা।

সংবাদের ধরন : বিনোদন নিউজ : নিউজ ডেস্ক