বিস্তারিত

শ্বশুরবাড়িতে বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের দাফন

ছবি : সংগ্রহকৃত

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনি আবদুল মাজেদের ফাঁসির দণ্ড রাত ১২টা ১ মিনিটে ঢাকার কেরানীগঞ্জের কেন্দ্রীয় কারাগারে কার্যকর করা হয়।

মরদেহ নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে দাফন করা হয়েছে। রোববার (১২ এপ্রিল) ভোরে উপজেলার শম্ভুপুরা ইউনিয়নের হোসেনপুর গ্রামে তার শ্বশুরবাড়ি এলাকায় স্কুলের পাশে কবরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হয়।

মাজেদের লাশ দাফনে ভোলায় স্থানীয়দের কঠোর আপত্তি থাকায় সোনারগাঁওয়ে তার শ্বশুরবাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

শনিবার রাত ১২টা ১ মিনিটে খুনি আবদুল মাজেদের ফাঁসি কার্যকর করা হয়। এরপর তার লাশ স্ত্রী সালেহা বেগমের কাছে হস্তান্তর করা হয়। প্রাথমিকভাবে সিদ্ধান্ত ছিল লাশ মাজেদের জন্মস্থান ভোলায় দাফন করা হবে। কিন্তু সেখানে দাফন নিয়ে স্থানীয় ভাবে আপত্তি তোলায় লাশ নারায়ণগঞ্জে দাফনের সিদ্ধান্ত হয়।

দিবাগত রাত সাড়ে ৩টায় কারাগারের ভেতর থেকে লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্স নারায়ণগঞ্জের উদ্দেশে রওনা দেয়। এ সময় সাদা রঙের একটি প্রাইভেটকারে মাজেদের স্ত্রীসহ স্বজনরা লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সকে অনুসরণ করতে থাকে।

সোনারগাঁও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইদুল ইসলাম জানান, মাজেদের দাফন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ কেন্দ্রীয় ভাবে করা হয়েছে। স্থানীয় প্রশাসনকে জানানো হয়নি। সকালে তিনি বিভিন্নজনের কাছ থেকে জানতে পেরে খোঁজখবর নিতে শুরু করেন।

গত ০৭ এপ্রিল (সোমবার) দিবাগত রাত ৩টার দিকে মিরপুর সাড়ে ১১ নম্বর এলাকা থেকে বঙ্গবন্ধুর অন্যতম খুনি মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন (অব.) আবদুল মাজেদকে গ্রেফতার করা হয়।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক