বিস্তারিত

শেহরিনকে দেখতে গেলেন কাদের-নাসিম

ছবি : সংগ্রহকৃত

নেপালে ইউএস-বাংলার উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় আহত শেহরিন আহমেদকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে দেখতে গেলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

আজ শুক্রবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে সেখানে যান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। এরপর দুপুর সোয়া ১২টার দিকে যান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এ সময় বার্ন ইউনিটের ছয়তলার ভিআইপি কেবিনে ভর্তি শেহরিন আহমেদের চিকিৎসার খোঁজখবর নেন মন্ত্রী। তিনি শেহরিন ও তাঁর স্বজনদের সঙ্গে কথা বলেন।

পরে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের জানান, শেহরিনের মনে অনেক সাহস ছিল। সে জন্য তিনি বিমান থেকে বের হতে পেরেছেন। তাঁর শরীরের ৫ শতাংশ পুড়ে গেছে।

এখন তিনি ভালো আছেন। এ সময় তিনি জানান, আরো যাঁরা আহত আছেন, তাঁদেরও দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

বিমান দুর্ঘটনায় আহত শেহরিনকে আজ শুক্রবার ঢামেক হাসপাতালে দেখতে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশ থেকে নেপালে যাওয়া মেডিকেল টিম সেখানে চিকিৎসা শুরু করে দিয়েছে। হতাহত যাঁরা দেশে আসবেন, তাঁদের জন্য এখন আমরা অপেক্ষা করছি। তাঁদের চিকিৎসার জন্য চিকিৎসকরাও প্রস্তুত আছেন।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘শেহরিন সুস্থ হয়ে যাবেন। আমরা কোনোমতেই চাই না, এ রকম দুর্ঘটনায় আর কেউ প্রাণ হারাক।’ চিকিৎসকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘কোনোমতে চিকিৎসার যেন কোনো ঘাটতি না হয়।

গত ১২ মার্চ নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন বিমানবন্দরে অবতরণের সময় বিধ্বস্ত হয় ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমানটি। ওই দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৬ বাংলাদেশিসহ ৫১ জন নিহত হয়েছেন। বিমানটিতে ৭১ আরোহী ছিলেন।

বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার পর নেপাল ও বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষের দাবি, কাঠমান্ডুর বিমানবন্দরের নিয়ন্ত্রণকক্ষ থেকে ভুল নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল পাইলটদের।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক