বিস্তারিত

শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের ওয়েবসাইট হ্যাক

bdnews24, prothom-alo ছবি : সংগ্রহকৃত

bd news,bdnews,bdnews24,bdnews24 bangla,bd news 24,bangla news,bangla,bangla news paper,all bangla newspaper,bangladesh newspapers,all bangla newspaper,bangla news paper,bangladesh newspapers,all bangla newspapers,bd news 24,bangla news today,bd news paper,all bangla news paper,bangladeshi newspaper,all bangla newspaper,all bangla newspapers,bdnews,bangla news,bangla newspaper,bangla news paper,bangla news 24,banglanews,bd news 24,bangla news today,bd news paper,all bangla news paper,bangladeshi newspaper,all bangla newspaper,all bangla newspapers

আজ বুধবার সকাল ৬টায় বাংলাদেশের জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের ওয়েবসাইট (www.nctb.gov.bd) সাইবার হামলার শিকার (হ্যাক) হয়েছে। হ্যাকাররা নিজেদের সৌদি আরবের বলে দাবি করেছে।

শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের ওয়েবসাইটে গিয়ে একটি ব্যানার দেখা যায়। সেখানে লেখা হয়েছে, ‘হ্যাকড বাই আরএক্সআর হ্যাকার।’

হ্যাকারদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সিরিয়ায় চলমান গণহত্যার ব্যাপারে বিশ্ববাসীর নীরবতার কারণে এই ওয়েবসাইট হ্যাক করা হয়েছে। কোনো ক্ষতির উদ্দেশ্যে নয়, বরং বিশ্ববাসীকে বার্তা দেওয়ার উদ্দেশ্যেই এই নিরাপত্তা লঙ্ঘন করা হয়েছে। পাঁচ বছর ধরে সিরিয়ার জনগণ ক্ষুধা, তৃষ্ণা, শীতে ভুগছে। সেখানে নারীরা ধর্ষণের শিকার হচ্ছে, শিশুরা মরছে, বাড়িঘর ধ্বংসস্তূপে পরিণত হচ্ছে এবং মানুষ জানে না তাঁদের ভাগ্য। সবকিছুর পর বিশ্ববাসী আমাদের বলে সন্ত্রাসী। আমরা এখানে নিজেদের আত্মসমর্থন করতে আসিনি। আমরা এখানে এসেছি আপনাদের সত্য জানাতে।

যুক্তরাষ্ট্রই ওসামা বিন লাদেন তৈরি করেছে। তাঁকে সহায়তা করেছে অস্ত্র ও অর্থ দিয়ে। পরে বলেছে সন্ত্রাসী। পরে যখন চেয়েছে তাঁকে বাদ দিয়েছে।

হ্যাকাররা দাবি করে, সিরিয়ার বাশার আল-আসাদ সরকারের গণহত্যার সমর্থন দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। শিগগিরই তাঁকে সন্ত্রাসী বলা হবে এবং বিন লাদেরই মতোই ঘটবে তাঁর ক্ষেত্রেও। তবে যুক্তরাষ্ট্র এখনই তাঁকে বাদ দিতে চায় না। তাঁকে সিরিয়ার যতটা সম্ভব মানুষ হত্যার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। ইসরায়েলকে সুযোগ করে দেওয়ার জন্য।

সংবাদের ধরন : বিজ্ঞান-প্রযুক্তি নিউজ : নিউজ ডেস্ক