বিস্তারিত

লাদাখের সীমান্তে সংঘর্ষে কর্নেলসহ ৩ ভারতীয় সেনা নিহত

ছবি : সংগ্রহকৃত

লাদাখের সীমান্তে গালোয়ান উপাত্যাকায় ভারত ও চীন সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ভারতীয় এক কর্নেল ও দুই সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন। সোমবার রাতে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে বলে ভারতীয় সেনাবাহিনী জানিয়েছে।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে সেনাবাহিনীর বরাতে জানানো হয়েছে, ভারতীয় সেনা সদস্য নিহত হওয়ার পাশাপাশি দুই দেশের সেনা সদস্যরা আহত হয়েছেন। সীমান্ত নিয়ে সামরিক পর্যায়ের বৈঠকের কয়েক সপ্তাহ পরে এমন বড় ধরনের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটল। কয়েক দশক পর পারমাণবিক শক্তিধর এই দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে এমন রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

গুলি ছাড়া যেসব সেনার মৃত্যু হয়েছে, তারা ভারতীয় ভূখণ্ডে শারীরিক লড়াইয়ে নিহত হয়েছেন। তাদের শরীরে পাথর ও লাঠির আঘাত রয়েছে।

অন্যদিকে বেইজিং পাল্টা অভিযোগ জানিয়েছে যে, ভারতীয় সেনাসদস্যরাই সীমান্ত পেরিয়ে ‘চীনা সেনাদের আক্রমণ’ করে। চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঝাও লিজিয়ান বেজিংয়ে সাংবাদিকদের বলেন, সোমবার দুইবার ভারতীয় সেনারা সীমান্ত অতিক্রম করে এবং চীনা সেনাদের উস্কানি দেয় ও আক্রমণ করে, এরপরই উভয়পক্ষের সীমান্ত বাহিনীর মধ্যে মারাত্মক সংঘর্ষ শুরু হয়।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দুই পক্ষের জ্যেষ্ঠ সামরিক কর্মকর্তারা বৈঠকে বসে উত্তেজনা নিরসনের চেষ্টা করেছে।

উল্লেখ্য, ভারত এবং চীনের মধ্যে প্রায় ৩,৫০০ কিলোমিটার দীর্ঘ সীমান্ত এলাকা রয়েছে। ইদানিং সেই সীমান্ত এলাকাতেই দুই দেশের সেনার মধ্যে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। এর আগে ১৯৭৫ সালে অরুণাচল প্রদেশের তুলুং লাতে এমনই একটি সংঘর্ষে ৪ ভারতীয় সেনাসদস্য প্রাণ হারিয়েছিলেন।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক