বিস্তারিত

লকডাউন তুলে নিতে মানববন্ধন করছেন ব্যবসায়ীরা

ছবি : সংগ্রহকৃত

রাজধানীর মিরপুরে লকডাউন তুলে নিতে মানববন্ধন করেছেন ব্যবসায়ীরা। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় মিরপুর ১০ নম্বর গোলচত্বরে শতাধিক ব্যবসায়ী মানববন্ধনে অংশ নেন। দুপুর ১টা পর্যন্ত এ মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তারা তাদের বিভিন্ন দাবি দাওয়া তুলে ধরেন।

মিরপুর ১০ নম্বর শাহআলী মার্কেট ও আশপাশের কয়েকটি মার্কেটের কয়েকশ ব্যবসায়ী সড়কের একপাশ দখল করে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আশপাশের ব্যবসায়ীরাও মানববন্ধনে অংশ নেন। বিক্ষোভকারীরা বলেন, ব্যবসায়ীরা এই লকডাউন বহনে সক্ষম না। তাদের দাবি লকডাউন তুলে নিয়ে দোকানপাট খোলার সময় যেন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত করা হয়। তা না হলে এ লকডাউন তাদের জীবন ও জীবিকার উপর আঘাত হানবে।

টানা তৃতীয় দিনের মতো মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত চাঁদনী চক শপিং কমপ্লেক্সের সামনে বিক্ষোভ করেন ব্যবসায়ী ও দোকানমালিকেরা। বিক্ষোভে অংশ নেওয়া ব্যবসায়ীরা দিনের নির্দিষ্ট একটা সময় স্বাস্থ্যবিধি মেনে মার্কেট খোলা রাখার দাবি জানান।

এক ব্যবসায়ী বলেন, সরকার ভাবুক, ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান না টিকলে দেশও টিকবে না। আমরা নির্দিষ্ট একটা সময় মার্কেট খোলা রাখতে চাই। রমজানে দোকান খোলা না থাকলে কী হবে, জানি না। গত বছরের ক্ষতিই পুষিয়ে উঠতে পারিনি।
তখন তার চোখ দিয়ে অঝোরে পানি ঝরছিল।

নারায়ণগঞ্জ থেকে বিক্ষোভে যোগ গিতে আসা নারী উদ্যোক্তা দিলশাদ আফরিন বলেন, আমার মতো হাজারো নারী উদ্যোক্তা ব্যাংক ও এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খুলেছে। উদ্যোক্তা হয়েছে। অনেক নারী উদ্যোক্তাই এখন খেয়ে না খেয়ে আছে।

চাঁদনী চক বিজনেস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন বলেন, গত বছরের সাধারণ ছুটি ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের ধাক্কা জানুয়ারি মাস থেকে একটু একটু করে সামলে উঠছেন তারা।

তিনি বলেন, আমাদের কাপড়টা পাইকারি বিক্রেতাদের কাছ থেকে খুচরা বিক্রেতাদের কাছে যাবে। তারপর কাস্টমাররা কিনবেন, তারপর টেইলরের কাছে বানাতে দেবে। আমাদের পিক আওয়ার এখন।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক