বিস্তারিত

লকডাউনে কীভাবে সময় কাটাচ্ছেন রাইমা সেন

ছবি : সংগ্রহকৃত

নভেল করোনাভাইরাস এক আতঙ্কের নাম। সর্বত্রই ছড়িয়ে পড়ছে এ ভাইরাস। অন্য সবার মতোই ভয়াবহ এ ভাইরাসের কারণে বিনোদন জগতের তারকারাও ভুগছেন। কিন্তু বিশ্বজুড়ে এ মহামারী থেকে রক্ষা পাননি হলিউড, বলিউডের অনেক তারকা। অভিনয়শিল্পী থেকে শুরু করে মিউজিশিয়ান কেউই বাদ যাননি। একের পর এক তারকা আক্রান্ত হচ্ছেন নভেল করোনাভাইরাসে।

করোনাভাইরাসে গৃহবন্দি থেকে নিজেদের ব্যস্ত রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তারকারা। রান্না থেকে জিম কিংবা ছবি আঁকা, নাচ-গান নিয়েই এখন তারা ব্যস্ত। এমনকী অনুরাগীদের ব্যস্ত রাখতেও তাদের জন্য রাখছেন প্রতিযোগিতা এবং চ্যালেঞ্জ।

অভিনেত্রী রাইমা সেন লকডাউনে একেবারে অন্যরকম সময় কাটাচ্ছেন তিনি। শুধু ওয়ার্কআউটের ছবি দিয়েই ভরিয়ে তুলছেন না সোশাল মিডিয়া। পাশাপাশি রাখছেন কিছু পুরোনো না দেখা ছবিও। তার শেয়ার করা সেই সব ছবিতেই ইনস্টাগ্রাম ভরেছে। প্রতিটি ছবিতেই লাইক, কমেন্টের বন্যা বইছে। নিজেকে নস্টালজিয়ায় রাঙিয়ে নিয়েছেন ছোটবেলার ছবি পোস্ট করেও।

এদিকে বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের এই মহামারীর নেপথ্যে তিনি মানুষকেই দায়ী করেছেন। তার মতে দীর্ঘদিন ধরে প্রকৃতির উপর আমরা সকলে যে অত্যাচার চালিয়ে এসেছি এটা তারই প্রতিক্রিয়া। রাইমা সেন বলেন, আমরা সবকিছুকেই নিজের মতো করে চালিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছিলাম। এই লকডাউন আমাদের সেই জায়গাটাকেই দেখিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে। এই মুহুর্তে আমরা সম্পর্কে নিয়ে ভাবতে শুরু করেছি, তার মূল্যায়ন করতে শিখছি। এখন প্রত্যেকের একটাই প্রার্থনা বিশ্ব যেন করোনামুক্ত হয়। আর এই একটাই স্বপ্ন আমাদের আবার এক হতে শিখিয়ে দিচ্ছে।

অনুরাগী থেকে সকলের কাছেই রাইমা আবেদন করেছেন নিয়ম মেনে এই করোনা লড়াই চালিয়ে যাওয়ার। তিনি বলেন, “একমাত্র বাড়িতে থেকেই এক সংক্রমণকে রোখা সম্ভব। আর বাইরে একান্ত যেতে হলে ঘরে বানান মাস্ক পড়ুন।” এমনকী স্বাস্থ্যকর্মী এবং চিকিৎসকদের প্রয়োজনের জন্য এন৯৫ মাস্ক এবং সার্জিকাল মাস্ক কম ব্যবহার করে বাড়িতে বানান মাস্কের উপরই জোর দেন তিনি।

সংবাদের ধরন : বিনোদন নিউজ : নিউজ ডেস্ক