বিস্তারিত

রোজিনার মুক্তির দাবিতে উত্তাল সারাদেশ

ছবি : সংগ্রহকৃত

প্রথম আলো পত্রিকার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তাকারীদের বিচার ও তাঁর মুক্তির দাবিতে আজ বুধবারও দেশের বিভিন্ন জেলায় প্রতিবাদ সমাবেশ, বিক্ষোভ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। পাশাপাশি রোজিনার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন সাংবাদিকরা।

গত সোমবার পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় সচিবালয়ে প্রায় ছয় ঘণ্টা আটকে রাখা হয় সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে। এ সময় তাঁকে হেনস্তা করা হয়। পরে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। স্বজনদের দাবি, শারীরিক ও মানসিকভাবে তাঁকে নির্যাতন করা হয়েছে। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেওয়ার কথা বলে রোজিনা ইসলামকে শাহবাগ থানায় নেওয়া হয়। রাত সাড়ে ৮টার দিকে তাঁকে সচিবালয় থেকে শাহবাগ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পৌনে ৯টার দিকে তাঁকে থানায় আনা হয়।

গভীর রাতে রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে সরকারি গোপনীয় নথি চুরির মাধ্যমে সংগ্রহ এবং ওই নথি দ্বারা বহির্বিশ্বের সঙ্গে বাংলাদেশের রাষ্ট্রীয় সম্পর্ক নষ্ট করার অপচেষ্টার অভিযোগ আনা হয়েছে।

সোমবার রাত থেকে সাংবাদিকেরা থানায় অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন। নানা নাটকীয়তার পরে গতকাল মঙ্গলবার সকালে সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে আদালতে তুলে পাঁচদিনের রিমান্ড আবেদন করে থানা পুলিশ। পরে আদালত রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর করে তাঁকে গাজীপুরে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এ ঘটনার পর দিনভর সারা দেশে রোজিনা ইসলামের মুক্তি চেয়ে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ করেন সাংবাদিকেরা। এ প্রতিবাদের অংশ হিসেবে গতকাল বিকেলে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার সঙ্গে যুক্ত কয়েকজন সাংবাদিক শাহবাগ থানায় গিয়ে স্বেচ্ছায় কারাবরণ করতে আবেদন করেন। তাঁদের দাবি, তাঁদেরও গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হোক।

চাঁদপুর প্রেসক্লাব ও চাঁদপুর টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের আয়োজনে আজ সকালে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় বক্তব্য দেন চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক রহিম বাদশা, চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি রোটারিয়ান কাজী শাহাদাত, চাঁদপুর টেলিভিশন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি মোহাম্মদ আল ইমরান শোভন, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ রিয়াদ ফেরদৌছ প্রমুখ।

চুয়াডাঙ্গা প্রেসক্লাবের আয়োজনে বেলা ১১টায় জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি পেশ এবং কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অবস্থান ধর্মঘট কর্মসূচি পালন করা হয়।

খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়ন, টিভি জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েসনের পক্ষ থেকে মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হয়। দুপুরে খুলনা প্রেসক্লাবের সামনে এবং শীববাড়ী মোড়ে এই কর্মসূচি পালিত হয়। পাশাপাশি মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে রোজিনা ইসলামের মুক্তি দাবি করেছে।

ময়মনসিংহ প্রেসক্লাব, সাংবাদিক ইউনিয়ন, টেলিভিশন রিপোর্টার্স ইউনিটি ও সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) জেলা ও মহানগর কমিটি আলাদাভাবে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে। দুপুরে শহরের ফিরোজ জাহাঙ্গীর চত্বরে এবং ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবের সামনে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়।

সুনামগঞ্জ পৌর শহরের আলফাত স্কয়ারে আজ সকাল ১১টায় মানববন্ধন করেছে সুজন জেলা কমিটি। সংগঠনের জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফজলুর করিমের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য দেন জেলা কমিটির সভাপতি আইনজীবী হোসেন তওফিক চৌধুরী, সংগঠনের উপদেষ্টা ও সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ সৈয়দ মহিবুল ইসলাম, সংগঠনের সহসভাপতি ও শিক্ষক আলী হায়দার, সহসভাপতি শাহিনা চৌধুরী, সদস্য শহীদ নূর আহমেদ প্রমুখ।

পাবনা প্রেসক্লাব ঘোষিত তিনদিন কর্মসূচির দ্বিতীয় দিনে সকালে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। পাবনা রিপোর্টার্স ইউনিটি, জেলা সংবাদপত্র পরিষদ, জেলা টেলিভশন ও অনলাইন সাংবাদিক সমিতি, বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি, প্রথম আলো বন্ধুসভা, ড্রামা সার্কেলসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও সাংবাদিক নেতারা এতে অংশ নেন।

বাগেরহাটে কর্মরত সাংবাদিকরা বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত জেলার প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেছেন। প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ সাংবাদিক নেতারা সরকারের নিকট অবিলম্বে রোজিনা ইসলামের মামলা প্রত্যাহার, মুক্তি ও হামলাকারিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

খাগড়াছড়ি সাংবাদিক ইউনিয়নের উদ্যোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আয়োজিত এ মানববন্ধনে জেলায় কর্মরত সাংবাদিকরা অংশ নেয়।

বেনাপোলে আজ সাংবাদিকদের মানববন্ধন, প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমাবেশে শার্শা উপজেলার কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সংবাদকর্মীরা অংশ নেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব প্রাঙ্গণে সকালে জেলা ও উপজেলায় বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকদের অংশগ্রহণে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি রিয়াজউদ্দিন জামির সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য দেন প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহসভাপতি পীযূষ কান্তি আচার্য্য, সাধারণ সম্পাদক জাবেদ রহিম বিজন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া টেলিভিশন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মনজুরুল আলম, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মো. আরজু, সিনিয়র সহসভাপতি আল আমিন শাহীন, প্রবীণ সাংবাদিক আবদুন নূর প্রমুখ।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাব চত্বরে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সাংবাদিক সমাজের ব্যানারে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মীরা অংশ নেন। অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য দেন সাংবাদিক তসলিম উদ্দিন, শামসুল ইসলাম টুকু, আনোয়ার হোসেন দিলু, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল হুদা অলক, সিটি প্রেসক্লাবের সভাপতি সাজেদুল হক, জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি জাফরুল আলম প্রমুখ।

কুমিল্লা নগরীর কান্দিরপাড়ে মানববন্ধন করেছে গণমাধ্যমকর্মীরা। মানববন্ধনে বক্তব্য দেন কুমিল্লা প্রেসক্লাবের আহবায়ক নিতীশ সাহা, প্রথম আলোর প্রতিবেদক গাজীউল হক সোহাগ, সাংবাদিক কাজি এনামুল হক ফারুক, খায়রুল আহসান মানিক, খালিদ সাইফুল্লাহ, মাহমুদ পারভেজ, বাহার রায়হান, আনোয়ার হোসাইন, সেলিম রেজা মুন্সী প্রমুখ। এ ছাড়া টেলিভিশন জার্নালিস্ট ফোরাম, ফটোসাংবাদিক ফোরাম সদস্যরাও নিজ সংস্থার ব্যানারে মানববন্ধন করে।

দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সামনের সড়কে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। এ সময় প্রেসক্লাবের সভাপতি স্বরূপ বকসী বাচ্চু, সাধারণ সম্পাদক সুব্রত মজুমদার ডলারসহ জেলার সাংবাদিকরা অংশ নেন।

ফরিদপুর প্রেসক্লাবের উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন প্রেসক্লাবের সভাপতি কবিরুল ইসলাম সিদ্দিকী।

রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা ও গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে গাজীপুরে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকালে জেলার পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। গাজীপুর প্রিন্ট মিডিয়া জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত কর্মসূচিতে গাজীপুরে কর্মরত সাংবাদিকরা অংশ নেন। সাংবাদিক শরীফ আহমেদ শামীমের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন অধ্যাপক মুকুল কুমার মল্লিক, মুজিবুর রহমান, ইকবাল আহমেদ সরকার, মো. আমিনুল ইসলাম, দেলোয়ার হোসেন, শাহ সামসুল হক রিপন প্রমুখ।

গোপালগঞ্জে প্রেসক্লাবের সামনে ঘণ্টাব্যাপী কর্মরত সাংবাদিকরা মানববন্ধন করেছে। মানববন্ধন চলাকালে গোপালগঞ্জে কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরা বক্তব্য দেন।

যশোরে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন ও স্মারকলিপি প্রদান করেছে সাংবাদিকদের সাতটি সংগঠন। কর্মসূচির অংশ হিসেবে বেলা সাড়ে ১১টায় যশোর প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করা হয়। মানববন্ধনে প্রেসক্লাব, সংবাদপত্র পরিষদ, সাংবাদিক ইউনিয়ন, যশোর সাংবাদিক ইউনিয়ন, টিভি জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশেন, জেলা সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ফটোজার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের মোট দুই শতাধিক সদস্য অংশ নেন।

ঝালকাঠি প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ঝালকাঠি প্রেসক্লাব আয়োজিত মানববন্ধনে রিপোর্টার্স ইউনিটি, প্রথম আলো বন্ধুসভা, ইয়ুথ অ্যাকশন সোসাইটি, মানবকল্যাণ সোসাইটি, ৭১-এর চেতনা, প্রতিবাদী নাগরিক মঞ্চসহ বিভিন্ন সংগঠন ও শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন।

মাগুরায় দুপুরে বিভিন্ন সংগঠন মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে। মাগুরা প্রেসক্লাবের সামনে জেলা জাসদ এবং পৌরসভার সামনে বন্ধুসভার ব্যানারে পৃথক মানববন্ধন পালিত হয়েছে।

মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের আয়োজনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়েছে। মানববন্ধনে বক্তব্য দেন মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল, সাবেক আহবায়ক আতিকুর রহমান টিপু, সাবেক সভাপতি শহীদ-ই-হাসান তুহিন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হোসেন সজল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ভবতোষ চৌধুরী নুপুর, প্রেসক্লাবের সহসভাপতি গোলজার হোসেন, সাংবাদিক মাহাবুব আলম লিটন, মাহাবুব বাবু, ফারহানা মির্জা, মঈনউদ্দিন সুমন, প্রেসক্লাবের তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক জুয়েল রানা, মাসুদ রানা প্রমুখ।

রোজিনা ইসলামের মুক্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে শেরপুর প্রেসক্লাবের সদস্যরা। আজ দুপুরে শহরের মাধবপুরস্থ প্রেসক্লাব কার্যালয়ের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

সিরাজগঞ্জে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে সাংবাদিকদের দুটি সংগঠন। সকালে পৌর এলাকার চৌরাস্তা প্রেসক্লাব চত্বরে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন জেলা শহরে কর্মরত সাংবাদিকরা। প্রেসক্লাবের সভাপতি হেলাল আহম্মেদের সভাপতিত্বে মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য দেন সাধারণ সম্পাদক জাকিরুল ইসলাম, সাংবাদিক বাবু ইসলাম, আব্দুল কুদ্দুস, আব্দুল মজিদ প্রমুখ।

মৌলভীবাজারের সাংবাদিকরা মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে। প্রেসক্লাব ও ইলেকট্রনিক জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের (ইমজা) যৌথ উদ্যোগে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশটি আযোজন করা হয়।

নওগাঁ জেলা প্রেসক্লাব ও নওগাঁ বন্ধুসভার আয়োজনে শহরের প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ ছাড়া একই সময়ে মান্দা উপজেলার ফেরিঘাট এলাকায় নওগাঁ-রাজশাহী মহাসড়কে মান্দা ও নিয়ামতপুর উপজেলা প্রেসক্লাবের যৌথ আয়োজনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

নওগাঁ জেলা প্রেসক্লাব কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন নওগাঁ জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি বিশ্বজিৎ সরকার মনি।

সকাল সাড়ে ৯ টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত সাংবাদিক ইউনিয়ন, বরিশাল প্রেস ক্লাব ও বরিশাল ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন (বিইমজা), বরিশাল টেলিভিশন ক্যামেরাপার্সন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, বরিশাল ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন, বিমান বন্দর থানা প্রেসক্লাব, অনলাইন প্রেসক্লাব, সাংবাদিক নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটি, বরিশাল এয়ারপোর্ট প্রেস ক্লাব, জাতীয় সাংবাদিক সোসাইটি, বরিশাল ফটো সাংবাদিক ঐক্য পরিষদ, তরুণ সাংবাদিক ঐক্য পরিষদ, বরিশাল সাংবাদিক পরিষদ, বরিশাল মেট্রোপলিটন প্রেস ক্লাব ও বরিশাল বাম গণতান্ত্রিক জোট বরিশাল জেলা শাখা পৃথকভাবে কর্মসূচি পালন করে।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক