বিস্তারিত

রাবি শিক্ষার্থী শরিফুলও এক বছর ধরে নিখোঁজ

ছবি : সংগ্রহকৃত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী শরিফুল ইসলাম এক বছর ধরে নিখোঁজ রয়েছেন।

সন্ধান চেয়ে তার পিতা অবসরপ্রাপ্ত স্কুলশিক্ষক আবদুল হাকিম ৪ জুলাই বাগমারা থানায় একটি জিডি করেছেন। শরিফুল রাজশাহীর বাগমারার ভবানীগঞ্জ পৌরসভার দরগামাড়িয়া এলাকার অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষকের ছেলে।

জিডির বিষয়টি নিশ্চিত করে বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্তকর্তা (ওসি) সেলিম হোসেন বুধবার বলেন, শরিফুল ইসলামের বাবা বাগমারা থানায় ৪ জুলাই সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। শরিফুল ‘বিপথগামী’ হয়ে থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করেছেন তার পরিবারের সদস্যরা।

জিডিতে শরিফুলের বাবা উল্লেখ করেছেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের স্নাতক (সম্মান) তৃতীয় বর্ষের ছাত্র শরিফুল শহরের একটি ছাত্রাবাসে থাকতেন। প্রায় এক বছর আগে তিনি নিখোঁজ হন। তখন থেকে তার মোবাইল ফোন বন্ধ রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৩ এপ্রিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক ড. এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকী খুন হন। রেজাউল করিমের গ্রামের বাড়িও বাগমারার ভবানীগঞ্জ পৌরসভার দরগামাড়িয়া এলাকায়। এই খুনের কয়েকদিন পর শরিফুলের বাবা ও ছোট ভাইকে রাজশাহী মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ তুলে এনে শরিফুলের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।

মহানগর পুলিশের মুখপাত্র, সহকারী কমিশনার (এসি) ইফতেখায়ের আলম বলেন, ‘রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক এ এফ এম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যা মামলার বেশ অগ্রগতি রয়েছে। আমরা এই মামলায় নিখোঁজ শরিফুলের সহপাঠী, রাজশাহী মহানগর বিএনপির সাবেক সহসভাপতি, নগরীর কাদিরগঞ্জের বাসিন্দা শফিউল আলম লাটকুর ছেলে মুনতাসিরুল আলম অনিন্দ্যকে গ্রেফতার করে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছি। ইতোমধ্যে মামলাটি তদন্তের বেশ অগ্রগতি হয়েছে। কয়েকজন আসামিকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সংবাদের ধরন : শিক্ষা নিউজ : স্টাফ রিপোর্টার