বিস্তারিত

যেভাবে মানুষজন শিশুসন্তানদের নিয়ে দোকানপাটে ভিড় করছেন, তাতে শঙ্কিত

ছবি : সংগ্রহকৃত

স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন বলেছেন, ঈদকে সামনে রেখে যেভাবে মানুষজন তাদের শিশুসন্তানদের নিয়ে দোকানপাটে ভিড় করছেন, তাতে আমি শঙ্কিত। ফেরিঘাটে যে হারে মানুষজন যাচ্ছে তাতে কোনোভাবেই স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। ১০০ জন মানুষের পরিবর্তে হাজার মানুষ এক ফেরিতে পার হচ্ছেন। আমাদের বেখেয়ালিপনায় যেন দেশের ক্ষতি না হয় সেদিকে সবাইকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, আমাদের সবার স্বাস্থ্যবিধি অবশ্যই মানতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি না মানলে আমাদের অবস্থা ভারতের চেয়েও খারাপ হবে। করোনা সারা বিশ্বকে নাড়া দিয়েছে। ভারতে লাশের পাশে আরেক লাশ সৎকার হচ্ছে। অক্সিজেন পাওয়ার জন্য সেখানে করোনা আক্রান্ত মানুষ ছোটাছুটি করছেন। অক্সিজেনের অভাবে মানুষ মারা যাচ্ছেন।

শুক্রবার বিকালে মানিকগঞ্জের নিজ বাড়ির শুভ্র সেন্টারে ঈদুল ফিতর ও করোনায় দুস্থদের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ভ্যাকসিন এখনো আমাদের হাতে কিছু মজুদ আছে। যাতে দ্বিতীয় ডোজ দিতে পারি তার জন্য রাশিয়া ও চীনের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হচ্ছি। এর মধ্যে একটা না একটা ব্যবস্থা হয়ে যাবে। ভ্যাকসিন যারা নিয়েছি তাদের অনেকেই মনে করেন, তাদের করোনা হবে না। অনেকেই দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন তাদের অনেকেই করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাই আমাদের দেশে ওষুধ ও অক্সিজেনের অভাব হয়নি। আমাদের দেশে প্রতিদিন গড়ে ৭০ থেকে ৮০ টন অক্সিজেন লাগে। দেশে অক্সিজেন উৎপাদন হচ্ছে ২০০ টন। আগামী মাসে আরো ৪০ টন অক্সিজেন উৎপাদন হবে। এতে আমাদের অক্সিজেনের অভাব হবে না। তবে স্বাস্থ্যবিধি না মানলে আমাদের অবস্থা খারাপ হয়ে যাবে।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক