বিস্তারিত

মেসেঞ্জারের নতুন সুবিধা

ছবি : সংগ্রহকৃত

সামাজিক যোগাযোগের অ্যাপ হিসেবে ফেসবুক মেসেঞ্জারে এনক্রিপশন ফিচার যুক্ত করছে ফেসবুক। এতে মেসেঞ্জারে নির্দিষ্ট কিছু কথোপকথন ব্যবহারকারী ছাড়া আর কারও দেখার সুযোগ থাকবে না। এই ফিচারকে বলা হবে ‘সিক্রেট কনভারশেসন’, যা মেসেঞ্জার অ্যাপের ভেতরই ব্যবহার করা যাবে। এটি ওয়েব ব্রাউজারে অনেকটাই ইনকগনিটো ট্যাবের মতো।
ফেসবুক কর্তৃপক্ষের ভাষ্য, আপনার যেকোনো ফেসবুক বন্ধুর সঙ্গে গোপন কথোপকথন (সিক্রেট চ্যাট) শুরু করতে পারেন এবং এই কথোপকথন হবে ‘এন্ড টু এন্ড’ এনক্রিপশনযুক্ত। এর অর্থ হচ্ছে, যাঁদের মধ্যে বার্তা বিনিময় হচ্ছে, শুধু তারাই এই বার্তাগুলো দেখতে ও পড়তে পারবেন। সাইবার দুর্বৃত্ত, টেলিকম অপারেটর, সরকারি কোনো সংস্থা, গোয়েন্দা, এমনকি ফেসবুক কর্তৃপক্ষও ওই বার্তা পড়তে পারবে না। এ ছাড়া ওই বার্তাগুলোতে ‘টাইমার’ বা নির্দিষ্ট সময় যুক্ত করে দেওয়ার সুযোগ থাকবে। এতে ওই বার্তা নির্দিষ্ট সময় পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে মুছে যাবে।
ফেসবুক কর্তৃপক্ষ বলছে, সাধারণ ফেসবুক মেসেঞ্জারের সেবায় কোনো পরিবর্তন আসছে না। যেকোনো ডিভাইস থেকে ফেসবুকে লগ ইন করে চ্যাট হিস্ট্রি পাওয়া যাবে। তবে নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় এই গোপন কথোপকথন শুধু একটি ডিভাইসে পাওয়া যাবে।
ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এই ফিচারটি কয়েকটি দেশে পরীক্ষা চালিয়ে আগামী সেপ্টেম্বর নাগাদ চালু করতে পারে।