বিস্তারিত

মৃত বন্দুকধারীর ফোনের তথ্য পর্যন্ত পৌঁছাতে পেরেছে, এফবিআই

banglanews24 ছবি : সংগ্রহকৃত

bd news,bdnews,bdnews24,bdnews24 bangla,bd news 24,bangla news,bangla,bangla news paper,all bangla newspaper,bangladesh newspapers,all bangla newspaper,bangla news paper,bangladesh newspapers,all bangla newspapers,bd news 24,bangla news today,bd news paper,all bangla news paper,bangladeshi newspaper,all bangla newspaper,all bangla newspapers,bdnews,bangla news,bangla newspaper,bangla news paper,bangla news 24,banglanews,bd news 24,bangla news today,bd news paper,all bangla news paper,bangladeshi newspaper,all bangla newspaper,all bangla newspapers

যুক্তরাষ্ট্রের সান বার্নারডিনোতে বন্দুক হামলা চালানো ব্যক্তির আইফোন আনলক করে ফোনে থাকা তথ্য পর্যন্ত পৌঁছাতে পেরেছে দেশটির কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরো (এফবিআই)। আর এ জন্য আইফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপলের কোনো সহায়তার প্রয়োজন হয়নি তাদের।

আজ মঙ্গলবার মার্কিন বিচার মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে বিবিসি অনলাইন এ তথ্য জানিয়েছে।

নিহত বন্দুকধারীর নাম রিজওয়ান ফারুক। গত ডিসেম্বর মাসে সান বার্নারডিনোতে বন্দুক হামলা চালিয়ে ১৪ জনকে হত্যা করেন রিজওয়ান ও তাঁর স্ত্রী তাশফিন মালিক। এ সময় পুলিশের পাল্টা গুলিতে নিহত হন তাঁরা। হামলার দিনই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে একটি পোস্ট দিয়েছিলেন তাশফিন।

সে সময় উদ্ধার হওয়া রিজওয়ানের আইফোনের তথ্য পেতে এর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অ্যাপলকে অনুরোধ করে এফবিআই। তবে এই অনুরোধে সাড়া দেয়নি প্রতিষ্ঠানটি। এফবিআইকে সহায়তা করতে মার্কিন সরকারের নির্দেশের পরও তা মানেনি অ্যাপল। ১০ বার ভুল পাসওয়ার্ড দিলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আইফোনের সব তথ্য মুছে যায়। এই পদ্ধতি নিষ্ক্রিয় রাখতে অ্যাপলকে নির্দেশ দিয়েছিলেন দেশটির এক আদালত। এ আদেশ তাদের গ্রাহকদের নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ফেলছে বলে মনে করে তারা। পরে অ্যাপলের সহায়তা না পেয়ে নিজেরাই আইফোন আনলক করার পদ্ধতি বের করে এফবিআই।

গতকাল সোমবার এক বিবৃতিতে কেন্দ্রীয় সরকারের আইনজীবী ইলিন ডেকার জানান, তৃতীয় একটি পক্ষ অ্যাপলের সাহায্য ছাড়াই আইফোনের লক খোলার উপায় বাতলেছে। তবে তৃতীয় পক্ষটির কোনো নাম বিবৃতিতে বলা হয়নি।

বিবৃতিতে বলা হয়, এর মাধ্যমে বোঝা যায় যে জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে মার্কিন সরকার ও এর নিরাপত্তা সংস্থাগুলো কতটা তৎপর। যখন আদালতের নির্দেশের পরও প্রয়োজনীয় সহায়তা পাওয়া যায় না, তখনো প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে তথ্য উন্মোচন করা হয়।

এ বিষয়ে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান অ্যাপল বলছে শুরু থেকেই আমরা আইফোনে প্রবেশের বিকল্প রাস্তা তৈরির বিষয়ে এফবিআইর দাবির বিষয়ে আপত্তি জানিয়েছি। কারণ আমরা মনে করি এটি অন্যায় এবং এর মাধ্যমে গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্য নিরাপত্তাহীন হয়ে পড়বে।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক