বিস্তারিত

মিস ওয়ার্ল্ড জয়ের পর, খাবার খেতে ব্যস্ত ঐশ্বর্য রাই

ছবি : সংগ্রহকৃত

বলিউডের সব থেকে সুন্দরী নায়িকাদের মধ্যে অন্যতম ঐশ্বর্য রাই বচ্চন। অভিষেক বচ্চনকে বিয়ে করে তিনি এখন বচ্চন পরিবারের পূত্রবধু। আরাধ্যার মা। ঐশ্বর্যর জীবনটাও সরল রেখার মতো সোজা নয়। তাঁর জীবনেও রয়েছে অনেক বাঁকা গলি। সলমন খান, বিবেক ওবেরয়ের মতো অনেক মানুষের নাম জড়িয়েছে এই অভিনেত্রীর সঙ্গে। তবে সে সব আজ অতীত।

১৯৯৪ সালে মিস ওর্য়াল্ড খেতাব জিতেছিলেন ঐশ্বর্য। ওই বছরই মিস ইউনিভার্স হয়েছিলেন সুস্মিতা সেন। খেতাব জয়ের পর ঐশ্বর্য নিজের কেরিয়ার তৈরি করেছেন সিনেমা জগতে।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর একটি ছবি ভাইরাল হয়। মেরুন শাড়ি, গোল্ডেন ব্লাউস পরে রয়েছেন তিনি। মাথায় মিস ওয়ার্ল্ডের ক্রাউন। মায়ের সঙ্গে মাটিতে বসে এই সাজেই খাবার খেতে ব্যস্ত অভিনেত্রী। এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার হতেই ভাইরাল হয়।

ঐশ্বর্যা রাই বচ্চন ম্যাঙ্গালোরে কৃষ্ণারাজ রাই এবং ভ্রিন্দা রাই এর ঘরে জন্মগ্রহণ করেন। তার বড় ভাইয়ের নাম আদিত্য রাই। যিনি বাণিজ্যিক নৌ-বহরের (মার্চেন্ট নেভি) একজন ইঞ্জিনিয়ার এবং দিল কা রিস্তা নামে রাই-এর একটি ছবিও তিনি সহ-প্রযোজনা করেছিলেন। ছোটবেলায় তার মা বাবা মুম্বাইতে চলে আসেন এবং তিনি সান্তা ক্রুজের আর্য বিদ্যা মন্দির উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন। এরপর এক বছরের জন্য রাই চার্চ গেটের জয় হিন্দ কলেজে পড়াশোনা করেন এবং তারপর তিনি উচ্চ মাধ্যমিক পড়েন (এইচ এস সি) মাতুঙ্গার রুপারেল কলেজে থেকে। স্কুলে পড়াকালীন তিনি খুব মেধাবী ছাত্রী ছিলেন এবং পরবর্তীকালে একজন স্থপতি হবার পরিকল্পনা নিয়ে স্থাপত্যশিল্প বিষয়ে পড়াশোনা করতে শুরু করেছিলেন। স্থাপত্যশিল্প নিয়ে পড়াশোনা শুরু করলেও মডেলিং কে জীবিকা হিসেবে গ্রহণ করার জন্য তাকে তা ছেড়ে দিতে হয়েছিল।

তার মাতৃভাষা তুলু[হলেও তিনি হিন্দী, ইংরেজি, মারাঠি এবং তামিল ভাষায় সাবলীলভাবেই কথা বলতে পারেন।

ঐশ্বর্যা রাই একজন জাতীয় পুরস্কার বিজয়ী ভারতীয় অভিনেত্রী এবং প্রাক্তন বিশ্ব সুন্দরী। অভিনয় জগতে পদার্পণ করার আগে তিনি মডেল হিসেবে কাজ করতেন এবং ১৯৯৪ সালে বিশ্ব সুন্দরী খেতাব অর্জন করার পর ব্যাপক খ্যাতি লাভ করেন। সমগ্র কর্মজীবনে রাই বেশ কিছু আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্রসহ চল্লিশটিরও বেশি হিন্দী, ইংরেজি, তামিল, এবং বাংলা চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

সংবাদের ধরন : বিনোদন নিউজ : নিউজ ডেস্ক