বিস্তারিত

মারামারি মামলায় ১১ মাসের শিশুকে আসামি

ছবি : সংগ্রহকৃত

চুরি ও মারামারির একটি মামলায় ১১ মাসের এক শিশু এবং মৃত এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়ায় ঘটনায় মামলার বাদীকে তলব করেছেন আদালত।

আজ মঙ্গলবার ঢাকার মহানগর হাকিম খুরশীদ আলম এই আদেশ দেন। বিচারক বাদীকে এ বিষয়ে আগামী সাতদিনের মধ্যে লিখিত জবাব দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন।

চলতি বছরের ২৭ ফেব্রুয়ারি মিরপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ও মামলার তদন্তককারী কর্মকর্তা (আইও) মারুফুল ইসলাম ওই শিশু ও আরিফুর রহমান নামের এক মৃত ব্যক্তিসহ ২৩ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এর পর আসামিপক্ষের আইনজীবী শফিকুল ইসলাম মামলার আইও ও বাদীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা চেয়ে আদালতে একটি আবেদন করেন।

আবেদনে উল্লেখ করা হয়, যে শিশুটিকে আসামি করা হয়, সে গত বছরের ৬ জুন জন্মগ্রহণ করে। অপরদিকে আরিফুর রহমান ২০১৩ সালের ৩১ জুলাই মৃত্যুবরণ করেন। ওই দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ২০১৬ সালের ২৬ জুন মিরপুরের বাসিন্দা হাবিবুর রহমান মামলা করেন।

মামলার সময় শিশুটির বয়স ছিল ২০ দিন। আর আরিফুর রহমান ঘটনার তিন বছর আগে মৃত্যুবরণ করেন।

নবজাতকের বাবা এ বিষয়ে সাংবাদিকদের বলেন, আমার ছোট ছেলের বয়স ১১ মাস। তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে। ঘটনার সময় তার বয়স ছিল ২০ দিন। কীভাবে এত ছোট বাচ্চা মারামারি করতে পারে আর কীভাবে চুরিই করতে পারে।

এ ঘটনায় মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত এবং দুই কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করা হয়।

বরখাস্ত হওয়া কর্মকর্তা হলেন মিরপুর থানার এসআই মারুফুল ইসলাম। প্রত্যাহার করা দুই কর্মকর্তা হলেন- থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সাজ্জাদ হোসেন ও সহকারী পুলিশ কমিশনার (এসি) কাজী মাহবুবুল আলম।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক