বিস্তারিত

মানিক মিয়া এভিনিউয়ের সাইকেল লেন থেকে ট্রাফিক পুলিশ বক্স উচ্ছেদ

ছবি : সংগ্রহকৃত

রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউয়ের সাইকেল লেন থেকে ট্রাফিক পুলিশ বক্স উচ্ছেদ করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। এছাড়া অভিযানের পর ফের দখল হওয়া ভ্রাম্যমাণ দোকানও উচ্ছেদ করা হয় দ্বিতীয় দিনের অভিযানে। সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) বেলা ১১টায় ডিএনসিসির মহাখালী অঞ্চলের (অঞ্চল-৫) আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ হোসেনের নেতৃত্বে ট্রাফিক পুলিশ বক্স উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়।

সোমবার (২৮ ডিসেম্বর) অভিযানের আগ পর্যন্ত রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউয়ের সাইকেল লেনে ব্যক্তিগত গাড়িসহ বিভিন্ন যানবাহন পার্কিং করতে দেখা যায়। স্বাভাবিকভাবে বাধ্য হয়েই রাস্তার মাঝ খান দিয়ে সাইকেল চালাতে হয় সাইকেল আরোহীদের।

এক সাইকেল আরোহী বলেন, আমাদের জন্য আলাদা সাইকেল লেন তৈরি করা হয়েছে। কিন্তু আমরা সেই লেন ব্যবহার করতে পারছি না। সাইকেল লেনের ওপর প্রাইভেট কার, ট্রাক, পিকআপ পার্কিং করে রেখেছে। অনেকেই জানেন না সাইকেল লেনের কথা। আবার অনেকে অন্যের দেখাদেখি গাড়ি পার্কিং করেন। এমনকি পুলিশও মোটর সাইকেল রাখেন এই লেনে।

সাইকেল লেনে গাড়ি পার্কিং করা এক ট্রাক ড্রাইভার বলেন, ‘এটা সাইকেল লেন আমি জানতাম না, তাই এখানে গাড়ি পার্কিং করেছি। কিন্তু গাড়ি তো আমি একা পার্কিং করিনি অনেকে পার্কিং করছে।’

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ হোসেন বলেন, আমরা রবিবার সাইকেল লেনে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছি। প্রায় একশ’র মতো অস্থায়ী দোকানপাট তুলে দেওয়া হয়েছে। ট্রাফিক পুলিশ বক্সের বিষয়টি আমাদের মাথায় ছিল। যেহেতু সরকারি একটা সংস্থার স্থাপনা। সেক্ষেত্রে চাইলেও সঙ্গে সঙ্গে ভাঙা যায় না। সিটি করপোরেশনের থেকে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলা হয়েছে। আজকে এটা উচ্ছেদ করে এই সাইকেল লেন পরিষ্কার করা হলো।

তিনি বলেন, আমরা এখানে কাউকে জরিমানা করতে অভিযান চালাচ্ছি না। সাইকেল লেনে ধারণাটা যেহেতু নতুন সেক্ষেত্রে মানুষকে সচেতনত করা ও জানানোর উদ্দেশ্যে আমরা অভিযান পরিচালনা করছি। আগামীকাল মঙ্গলবারও অভিযান চালনো হবে।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক