বিস্তারিত

মাতৃত্বের এই জার্নি উপভোগ করছেন অভিনেত্রী শুভশ্রী

ছবি : সংগ্রহকৃত

মাতৃত্বের এই জার্নি উপভোগ করছেন অভিনেত্রী শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়। পরিবারের সকলের সঙ্গে সময় কাটানো, আড্ডা এসব তো আছেই। সেই সঙ্গে ডায়েট ভুলে দেদার আইসক্রিম চকোলেট খাচ্ছেন। আর যে মাত্র কয়েকদিনের অপেক্ষা। বৃহস্পতিবার হয়ে গেল শুভশ্রীর সাধভক্ষণের অনুষ্ঠান।

মাস্টার্ড ইয়লো রঙের সিল্কের শাড়ি আর সাবেকি সোনার গয়নায় ভীষণ সুন্দর লাগছিল তাঁকে। সেই সঙ্গে মুখে একরাশ খুশির ছোঁয়া। যে কোনও মেয়ের কাছেই এই অনুষ্ঠান খুব সুখকর একটা অনুভূতি। বিশেষ স্মৃতি হয়ে থেকে যায়। শুভশ্রীর কাছেও তাই। এবছর বিবাহবার্ষিকীতেই সুখবর দেন শুভশ্রী। আর সেই বার্তাও তিনি দারুণ ভাবে দিয়েছিলেন। সেই খবরের পর শুভেচ্ছার স্রোত বয়ে যায় তাঁদের সোশ্যাল মিডিয়ায়। স্ত্রীয়ের যাবতীয় খেয়াল রাখছেন রাজ। এমনিতেও তিনি তাঁর আদরের শুভর যাবতীয় আবদার মেটান।

শুভশ্রীর মন ভালো রাখতে তাঁর বেবিবাম্পের প্রথম ছবি স্ত্রীকে না জানিয়েই ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছিলেন তিনি। সেকথা নিজেই বলেছেন। করোনা, উম্পিনের প্রাকৃতিক দুর্যোগের পর বেহাল বাংলা দেখে মন খারাপ হয়ে গিয়েছিল শুভশ্রীর। সেই সময় তিনি তাঁর হবু সন্তানের জন্য একটি কবিতাও লিখেছিলেন।

মা হতে চলেছেন এই খবর জানবার পর থেকেই নিজের খাওয়াদাওয়া, স্বাস্থ্য বিষয়ে আরও সচেতন হয়ে উঠেছেন তিনি। তবে মিস করছেন বেড়াতে যাওয়া ওয়ার্ক আউট। তাঁদের বিবাহবার্ষিকীও খুব সুন্দর করে নিজেদের বাড়িতেই কাটিয়েছেন। ফ্ল্যাটের ডাইনিং এর একটি কর্নারে রেস্তোরাঁর সেটআপ করেছিলেন শুভশ্রী। রাতের তারাভরা আকাশ, পছন্দের গান, সুগন্ধী ক্যান্ডেল আর শ্যাম্পেনে জমে উঠেছিল তাঁদের সেলিব্রেশন।

নিজের বেবিবাম্পের ছবি, নানা মুহূর্তের ছবি সবসময় ভাগ করে নিয়েছেন অনুরাগীদের সঙ্গে। রাজ চান তাঁদের সন্তান শুভশ্রীর মতই ধৈর্য্যশীল হোক। শান্ত হোক। এখন থেকেই বাড়িতে জোরে কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছে চক্রবর্তী পরিবার। আপাতত নতুন সদস্যের আগমনের জন্য দিন গপনছেন তাঁরা। দিন গুনছেন তাঁদের ফ্যানেরা। চারিদিকের বিষাদের মধ্যে এরকম খবর কিছুটা হলেও মন ভালো করে দেয়। বেবিবাম্প, প্রেগন্যান্সি গ্লো সব মিলিয়ে অন্যরকম অনুভূতিতে দিন কাটাচ্ছেন শুভশ্রী।

সংবাদের ধরন : বিনোদন নিউজ : নিউজ ডেস্ক