বিস্তারিত

ভারতে ‘চুমু বাবা’ ধরা পড়লেন

ছবি : সংগ্রহকৃত

নিজেই নিজের নাম দিয়েছিলেন ‘চুমু বাবা’। চুমুর জোরে নাকি মহিলাদের শারীরিক মানসিক সব রোগ সারাতে পারেন।

শুধু তাই নয়, সাংসারিক সমস্যা থেকে শুরু করে শারীরিক সমস্যা, স্বামীকে নিয়ে অশান্তি, দীর্ঘদিন ধরে সন্তান হচ্ছে না, পরকীয়ায় আসক্ত হয়েছেন স্বামী, স্বামীকে বশ করা যাচ্ছে না, চুমুর মাধ্যমে এসব সমস্যার সমাধান করে থাকেন এই বাবা। তবে শর্ত একটাই, চুমু বাবার কাছে আসতে হবে শুধু নারীদের।

আর এ ধরনের প্রচারণা চালিয়ে এতদিন ঠকিয়ে আসছিলেন ভারতের আসাম রাজ্যের নারীদের। শেষপর্যন্ত এই চুমু বাবাকে আটক করেছে আসাম পুলিশ। বৃহস্পতিবার তাকে আটক করা হয়।

ভারতীয় গণমাধ্যমে বলা হয়, চুমু বাবার আসল নাম রামপ্রকাশ চৌহান। আসামের মরিগাঁও জেলার ভরালটুপ গ্রামে ভণ্ডামির ব্যবসা ফেঁদে বসেছিলে তিনি। গত তিন মাস ধরে গ্রাম থেকে মহিলারা তাদের সমস্যা সমাধানে তার কাছে এসেছেন। ভক্ত সমাগমের জেরে বাড়ির সামনে চুমু বাবার মন্দিরও নির্মাণ করা হয়।

সম্প্ৰতি অভিযোগ উঠে, ঐশ্বরিক চুম্বন দেওয়ার নাম করে মেয়েদের সজোরে জাপটে ধরে চুমু দিতেন এই বাবা। এতে শালীনতার সব সীমা অতিক্রম হতো। তার এই প্রতারণার খবর স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমের কাছ থেকে পেয়ে বাবার আস্তানায় হানা দেয় পুলিশ। ছেলের সঙ্গে ধরা হয় তার মাকেও। কারণ ছেলের হয়ে মা ছিল অন্যতম বিজ্ঞাপন।

সংবাদের ধরন : অপরাধ নিউজ : নিউজ ডেস্ক