বিস্তারিত

ভারতের সঙ্গে কোনো গোপন চুক্তি হয়নি

ছবি : সংগ্রহকৃত

আজ বুধবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ভারতের সঙ্গে কোনো গোপন চুক্তি করেনি সরকার বরং জনগণকে না জানিয়ে চীনের সঙ্গে সামরিক চুক্তি করেছিল বিএনপি।

প্রশ্নোত্তর পর্বে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ভারতের সঙ্গে হওয়া চুক্তি ও সমঝোতার বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়। পাশাপাশি জানতে চাওয়া হয় কোন কোন দেশের সঙ্গে সামরিক সমঝোতা বা চুক্তি রয়েছে বাংলাদেশের।

জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, চীন, কাতার, কুয়েত, রাশিয়াসহ বেশ কয়েকটি দেশের সঙ্গে সামরিক চুক্তি রয়েছে বাংলাদেশের আর ভারত সফরে করা চুক্তিগুলো করা হয়েছে এ দেশের মানুষের উন্নয়নের স্বার্থে।

শেখ হাসিনা সংসদে বলেন, চীনের সঙ্গে যে সমঝোতা চুক্তি বা চুক্তিটা হয়েছিল সেটা কিন্তু তখন বিএনপি ক্ষমতায় ছিল। এবং বিএনপি ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় যখন এই চুক্তিটি করে তখন কিন্তু একটি কথাও তাঁরা বাংলাদেশের কাউকে জানতে দেয় নাই। এটা হলো বাস্তবতা।

ভারত সফরকালে যেসব চুক্তি বা সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে তার সবগুলো এরই মধ্যে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। কোনো চুক্তি বা সমঝোতা স্মারকই দেশের স্বার্থবিরোধী নয়।

শেখ হাসিনা আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন যে, তাঁর সরকার ও আমার সরকার ক্ষমতায় থাকতেই তিস্তার পানিবণ্টনের চুক্তি হবে।

ভারতের সঙ্গে চুক্তিগুলোর বাস্তবায়ন শিগগিরই শুরু হবে বলেও সংসদকে জানান প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশের গণতন্ত্রকে প্রশ্নবিদ্ধ করার সুযোগ নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বাংলাদেশকে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত করার জন্য যা যা করণীয়, তাই করা হবে বলে আবার উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, তবে তা অব্শ্যই দেশবিরোধী উপায়ে নয়।

সংবাদের ধরন : শিরোনাম নিউজ : নিউজ ডেস্ক