বিস্তারিত

বিশ্ব মাতিয়ে দিলো বাংলা গান ‘অপরাধী’

ছবি : সংগ্রহকৃত

ঈগল মিউজিকের অ্যাকাউন্ট থেকে আপলোড আলোচিত গান ‘অপরাধী’ প্রকাশের পর থেকেই একের পর এক রেকর্ড গড়ছে। ভিডিওটি এরই মধ্যে দেখেছেন ৪ কোটি ৩১ লাখেরও বেশি মানুষ। প্রতি সেকেন্ডেই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে গানের ভিউয়ারের সংখ্যা।

গত ২৬ এপ্রিল ঈগল মিউজিক প্রকাশ করে অংকুর মাহমুদ ফিচারিং আরমান আলিফের ‘অপরাধী’ গানের মিউজিক ভিডিও। গানটি প্রকাশের পর রাতারাতিই আলোচনায় উঠে আসেন নেত্রকোনার ছেলে আরমান আলিফ। ঢাকা কমার্স কলেজে অধ্যয়নরত আলিফের এটি তৃতীয় গান।

মিউজিক ভিডিওটিতে মডেল হয়েছেন আনান, সুমাইয়া আনজুম ও তুহিন চৌধুরী। এই গানের মাধ্যমে আলিফ শুধুমাত্র তার নিজের রেকর্ডই ছাড়িয়ে যাননি বরং ছাড়িয়েছেন পেছনের বাংলা গানের সব রেকর্ডকে। এই মিউজিক ভিডিওটি গত সপ্তাহে ইউটিউবের গ্লোবাল র‌্যাঙ্কিংয়ের সেরা ১০০ গানের মধ্যে ৮০তম স্থানে অবস্থান করছে। যা এরইমধ্যে ইউটিউবে বাংলাদেশের সব রেকর্ড ছিন্নভিন্ন করে দিয়েছে। জনপ্রিয়তা পেয়েছে পশ্চিমবঙ্গেও।

আলিফ নিজে চন্দ্রবিন্দু বিডি নামের একটি ব্যান্ডের সঙ্গে যুক্ত। তার গাওয়া ‘নিকোটিন’ (২০১৭) গান চন্দ্রবিন্দুর ব্যানারে মুক্তি পায়। এরপর আসে ‘নেশা’ (২০১৭) গানটি। তৃতীয়টি মুক্তি পেল ঈগল মিউজিকের ব্যানারে।

গানটি প্রকাশের পর এর কাভার গাইছেন অসংখ্য মানুষ। শনিবার বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের কণ্ঠে গানটির ভিডিও ব্যাপক ভাইরাল হয়। সাকিব আল হাসান, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, আবু হায়দার রনিসহ বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার ভারতের দেরাদুনে ড্রেসিংরুমের আড্ডায় কাভার করে ভিডিও আপলোড করেন। মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ে ওই ভিডিও। ঘণ্টার ব্যবধানে ওই ভিডিওতে ভিউয়ারের সংখ্যা লাখ ছাড়িয়ে যায়। এছাড়া গানটি কাভার করে ব্যাপকভাবে আলোচিত হন টুম্পা খান সুমি।

মূল গানটি প্রেমিকাকে উদ্দেশ্য করে গাওয়া হলেও টুম্পা মূলত গেয়েছেন সাবেক প্রেমিককে উদ্দেশ্য করে। ‘মাইয়া ও মাইয়ারে তুই অপরাধী রে…’ এই জায়গাতে টুম্পা গেয়েছেন ‘পোলা ও পোলা রে তুই অপরাধী রে…’। টুম্পার নিজের ইউটিউব অ্যাকাউন্ট থেকে আপলোড করা এই গানটি এরইমধ্যে দেখেছেন ২৮ লাখেরও বেশি মানুষ।

তবে এই গানটি যে এতটা ভাইরাল হবে, তা গাওয়ার আগে আলিফ কিংবা টুম্পা, কেউই ধারনা করতে পারেননি। নিজেরাই স্বীকার করেছেন এই কথা।

অন্যদিকে, টুম্পা বলেন, ‘আমি সব সময় সফ্‌ট গান করি। গাওয়ার সময় নিজেই ইন্সট্রুমেন্ট বাজাই। বেশ কয়েকদিন আগে একটি নতুন ইন্সট্রুমেন্ট ‘উকুলিলি’ কিনেছি। সেই ইন্সট্রুমেন্ট বাজিয়ে প্রথমে ‘অপরাধী’ গানটি গেয়িছে। তখন গানটি ভাইরাল হওয়ার কথা কল্পনাও করিনি। গানটি দরদ দিয়েই গাওয়ার চেষ্টা করেছি। জাস্ট গানটি গেয়ে দ্রুত ফেসবুক ও আমার ইউটিউব চ্যানেলে আপ করি। তারপর থেকে তো দেখলাম গানটি রীতিমতো সাড়া ফেলে দিয়েছে। দেখলাম বহু মানুষ গানটি শেয়ার দিচ্ছেন। দেশ-বিদেশ থেকে মানুষ আমাকে ফোন দিচ্ছে। সবাই আমার গায়কীর প্রশংসা করছেন।

এই গানের মাধ্যমে ‘তারকা’ বনে যাওয়া আলিফ কিংবা টুম্পার গানে নেই কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা। দুজনেই শুনে শুনে গান শিখেছেন।

এ বিষয়ে আলিফ আরো বলেন, ‘আমার মায়ের খুব আগ্রহ গানের প্রতি। এরপর আমার প্রচণ্ড আগ্রহ জন্মে। গান নিয়ে আমার কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা নেই। আমিই ব্যান্ডের জন্য গান লিখি ও সুর করি। ভালোবাসা থেকেই গান লেখা ও সুর করা। এরপর ব্যান্ড তৈরি করে নিজে নিজেই গেয়েছি।’

অন্যদিকে টুম্পা আরো বলেন, ‘আমার বাড়ি মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে। ছোটবেলা থেকে গান শুনি। শুনে শুনেই গান গাওয়া শুরু। এলাকায় গান শেখার তেমন ব্যবস্থা ছিল না। ফলে গান শেখার তেমন সুযোগ ছিল না। তবে স্থানীয় একজনের কাছ থেকে কিছুদিন তালিম নিয়েছি।

সংবাদের ধরন : বিনোদন নিউজ : নিউজ ডেস্ক