বিস্তারিত

বিএনপির মশাল মিছিলে পুলিশের ধাওয়া

ছবি : সংগ্রহকৃত

রাজধানীর বনানীতে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা মশাল মিছিল বের করলে পুলিশ ধাওয়া দিয়ে তা ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে। দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর অভিযোগ, এ সময় কয়েকজনকে আটক করেছে পুলিশ।

আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বনানীতে লেখক মুশতাক আহমদের কারাবন্দি অবস্থায় মৃত্যু, সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের রাষ্ট্রীয় খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্ত এবং বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে পরোয়ানার প্রতিবাদে এই মিছিল বের হয়।

ওই মশাল মিছিলে ধাওয়ার ঘটনা ঘটে, তবে মিছিল থেকে কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি বলে বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরে আজম মিয়ার দাবি। তিনি বলেন, একটি মশাল মিছিল বের করা হয়েছিল। আমরা ধাওয়া দিলে তা ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। কিন্তু আমরা তখনও জানতাম না এটি বিএনপির মশাল মিছিল। বিষয়টি আমরা পরে জেনেছি।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের উদ্যোগে আয়োজিত মশাল মিছিলে নেতৃত্ব দেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সহসাধারণ সম্পাদক তারিকুল ইসলাম তেনজিং, বিএনপি নেতা এ এফ এম খালেদ, ফজলুর রহমান মন্টু, শিমুল হোসেন ফারুক, স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা সুমন হোসেন, জিল্লুর রহমান রুপকসহ নেতাকর্মীরা মিছিলে উপস্থিত ছিলেন।

বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের একাধিক নেতাকর্মী অভিযোগ করে জানান, সন্ধ্যায় বনানী বাজারের সামনে থেকে একটি মশাল মিছিল বের করেন তাঁরা। মিছিলটি কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউ প্রধান সড়কে উঠে কাকলীর দিকে এগোতে থাকলে মিছিলের পেছন থেকে পুলিশ ধাওয়া দেয়। এরপর লাঠিপেটা করে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ করে দেয়। পরে সেখান থেকে বিএনপি নেতা আব্দুল হকসহ কয়েকজনকে আটক করে পুলিশ।

এদিকে মিছিলে অতর্কিত হামলা ও নেতাকর্মীদের আটকের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, আমাদের শান্তিপূর্ণ মিছিলে পুলিশ অতর্কিতে হামলা চালিয়ে অনেককে আহত ও আটক করেছে। তিনি অবিলম্বে আটক নেতাকর্মীদের নি:শর্ত মুক্তি দাবি জানান।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক