বিস্তারিত

বারাক ওবামা সরাসরিই আক্রমণ করলেন ডোনাল্ড ট্রাম্পকে

ছবি : সংগ্রহকৃত

প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা সরাসরিই আক্রমণ করলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনকে। কোনও রাখঢাক না করেই তিনি বলেন, বিশ্বজোড়া সংক্রমণ চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে যাঁরা দায়িত্বে আছেন, তাঁরা ভালো করে জানেন, তাঁরা কী করছেন। এই সময়ে অনেক কর্মকর্তারা লোকদেখানো কাজ করা বা দায়িত্বে থাকার ভান পর্যন্ত করছেন না।

কৃষ্ণাঙ্গদের কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকদের এক অনলাইন ভাষণে ওবামা জানান, কোভিড-১৯ এর পরিস্থিতিতে প্রমাণ করে দেশের নেতৃত্ব পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে।

এর আগে দেশ জুড়ে যে ভাবে করোনা ছড়িয়েছে তার জন্য সরাসরি ট্রাম্প প্রশাসনকে দায়ী করেছেন ওবামা। একটি ফাঁস হওয়া কনফারেন্স কলে তাঁর বক্তব্য ছিল, দেশে সব চেয়ে ভালো সরকার ক্ষমতায় থাকলেও মহামারী হয়তো রোখা যেত না। পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারত। কিন্তু ট্রাম্পের সরকার যে ভাবে এর মোকাবিলা করছে, তা বিশৃঙ্খল, অরাজক। একেই ‘কেওটিক ডিজাস্টার’ বা বিশৃঙ্খল বিপর্যয় বলে বর্ণনা করেছেন ওবামা। তাঁর মতে, ট্রাম্প সরকার কেবল নিজের কথা ভাবে। যে কোনও পরিস্থিতিতে নিজের লাভ খোঁজে। করোনা পরিস্থিতিতেও সেই একই ঘটনা ঘটছে।

এ পর্যন্ত আমেরিকায় মারা গিয়েছেন ৯০ হাজারের বেশি মানুষ, আক্রান্ত ১৪ লক্ষ। গত ২৪ ঘণ্টায় জীবনহানির সংখ্যা ১২০০। বিশ্বের অন্য যেকোনো স্থানের তুলনায় এটাই মৃতের সবচেয়ে বড় সংখ্যা।

এই করোনাভাইরাস আমেরিকায় কৃষ্ণাঙ্গ সম্প্রদায়ের ওপর কী প্রভাব ফেলছে সে বিষয়েও দীর্ঘ বক্তব্য রাখেন ওবামা। তিনি বলেন, ‘কৃষ্ণাঙ্গরা আমেরিকায় যে অবস্থায় আছেন, তার সঙ্গে এই রোগ যুক্ত হয়ে তাঁদের প্রতি বৈষম্য বাড়িয়ে দিয়েছে এবং এবং তাঁদের ওপর অতিরিক্ত বোঝা হয়ে উঠেছে। ওবামা আমেরিকায় কৃষ্ণাঙ্গ আমাউদ আরবেরিকে হত্যার প্রসঙ্গ টেনে আনেন তাঁর বক্তব্যে। আরবেরিকে ফেব্রুয়ারিতে দু’জন শ্বেতাঙ্গ গুলি করে হত্যা করে। এ সময় আরবেরি জগিং করছিলেন।

এ প্রসঙ্গে ওবামা বর্ণবৈষম্যের কথা বলেন। তিনি বলেন, জগারকে যে কোনও সময় থামতে বলা হবে ও না থামলে তাঁকে গুলি করা যাবে, এই তো হচ্ছে অবস্থা। গ্র্যাজুয়েটদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘যদি উন্নত বিশ্ব গড়ে তুলতে হয়, তাহলে তা করতে হবে তোমাদেরই।

সংবাদের ধরন : আন্তর্জাতিক নিউজ : নিউজ ডেস্ক