বিস্তারিত

বাগেরহাটে কুকুরের আক্রমনে ২৮ ব্যক্তি আহত

ছবি : সংগ্রহকৃত

বাগেরহাটের শরণখোলায় গত দু’দিনে বেওয়ারিশ কুকুরের আক্রমনে ২৮ ব্যক্তি আহত ও গবাধি পশুর মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কুকুরে কামড়ানো রোগীর ভীড় সামলাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে চিকিৎসকদের। এর আগে দু-একজন রোগী হাসাপাতালে এলেও গত বুধ ও বৃহস্পতিবার কুকুরে কামড়ানো রোগীর সংখ্যা সর্বোচ্চ বলে চিকিৎসকরা জানান।

এদিকে, হাসপাতালে ভ্যাকসিন না থাকায় আরো বিড়ম্বনায় পড়েছেন চিকিৎসকরা। বাধ্য হয়ে বাইরে থেকে চড়া দামে ভ্যাকসিন কিনে চিকিৎসা নিতে হচ্ছে রোগীদের।

উপজেলার সর্বত্র এখন কুকুর আতঙ্ক বিরাজ করছে। আক্রান্তদের মধ্যে উপজেলার বানিয়াখালী গ্রামের মোস্তফা সিকদার (৪৫) ও খাদা গ্রামের কাজল আকনকে (৬৫) গুরুতর অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. অসীম কুমার সমাদ্দার জানান, ধারণা করা হচ্ছে কুকুরগুলো জলাতঙ্ক রোগে আক্রান্ত হওয়ায় মানুষ ও গবাধি পশুর উপর আক্রমণ করছে। হাসপাতালে ভ্যাকসিন না থাকায় রোগীদের নিয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে হচ্ছে। ভ্যাকসিনের জন্য জেলা সিভিল সার্জন অফিসে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিংকন বিশ্বাস জানান, গত কয়েকদিন ধরে কুকুরের আক্রমণে মানুষ ও গবাদি পশু আক্রান্ত হওয়ার খবর আসছে। এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলাপ করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক