বিস্তারিত

বলিউড স্টার সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যা!

ছবি : সংগ্রহকৃত

রহস্যজনকভাবে মৃত্যু হল অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের। রবিবার মুম্বইয়ের ফ্ল্যাট থেকে অভিনেতার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। অভিনেতার বয়স হয়েছিল ৩৪ বছর। পুলিশ সূত্রে খবর, বান্দ্রার ফ্ল্যাটে তাঁর ঝুলন্ত দেহ পাওয়া গিয়েছে।

অভিনেতা হিসেবে তিনি খুবই সফল ছিলেন। কিন্তু তাও কেন অবসাদে ভুগছিলেন তিনি তা রহস্যের। সম্প্রতি অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন তিনি। এক সময়ে অভিনেত্রী কৃতী স্যানন ও অঙ্কিতা লোখান্ডের সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন তিনি।

একাধিক বলিউডের ছবিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। তাঁর সবচেয়ে উল্লেখ্য ছবিগুলি হলো এম এস ধোনি, ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সী, কেদারনাথ। শেষ তাঁকে দেখা গিয়েছিল ছিছোরে ছবিতে।

টেলিভিশন শো দিয়ে অভিনয় শুরু সুশান্তের। তাঁর জনপ্রিয় সিরিয়াল ছিল ‘পবিত্র রিস্তা।’ অঙ্কিতা লোখান্ডের সঙ্গে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। রীতিমত ঘরে ঘরে চলত সেই ধারাবাহিক। তখন থেকেই অভিনেত্রীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তিনি।

এরপর অঙ্কিতার সঙ্গে বেশ কয়েক বছর লিভ-ইন সম্পর্কে ছিলেন। পরে তাঁদের সম্পর্ক ভেঙে যায়। কৃতী শ্যাননের সঙ্গে সম্পর্কের কথা শোনা গিয়েছিল বেশ কিছুদিন। সম্প্রতি বাঙালি অভিনেত্রীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন তিনি।

যাঁর এত নাম, এত টাকা, এত ভক্ত– যে ক্রিকেট খেলে, ডিজনিল্যান্ডে বেড়াতে যায়, পাখিদের হাতে করে খাওয়ায়, জিম করে বডি বানায় যে টেলিভিশনের এক অভিনেতা থেকে দারুণ দারুণ সব বলিউড ছবিতে অভিনয় করার ধক রাখে, একের পর এক হিট সিনেমায় কাজ করে, সাফল্যের সিঁড়িতে উঠে নতুন কিছুর পিছনে ছুটতে চায় প্রেম করে, প্রেম ভাঙলে আবার প্রেম করার সাহস জোটায়, সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে নিজের দৈনন্দিন জীবনের টুকরো ছবি-রুটিন– সেই মানুষটাও এ ভাবে আত্মঘাতী হয়? মেনে নিতে হৃদয় নিংড়ে ওঠা কষ্ট হলেও এটাই সত্যি। মাত্র ৩৪ বছর বয়সে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত। ১৪ জুন ২০২০-র রবিবারের এই দুপুর খুব সহজে ভুলতে পারার নয়।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের দাবি, বান্দ্রায় নিজেই বাড়িতেই আত্মঘাতী হয়েছেন সুশান্ত। বাড়ির পরিচারক পুলিশকে ফোন করে খবর দিয়েছেন। তবে ঠিক কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন তা এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি। বাড়ি থেকে মেলেনি কোনও সুইসাইড নোট। প্রাথমিক ভাবে মনে করা হচ্ছে, অভিনেতা মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন।

সেই সুশান্তের শেষ ইনস্টাগ্রাম পোস্টে রয়েছে তাঁর মায়ের সঙ্গে নিজের একটি সাদা-কালো ছবি। সাদা-কালো ছবিটির ভিতরে থাকা ধূসরেই যেন লুকিয়ে সুশান্তের শেষ কথাগুলি

গত ৩ জুন পোস্ট করা এই ছবিতে সুশান্ত ক্যাপশন করেছেন, ‘ঝাপসা হয়ে যাওয়া অতীত চোখের জল হয়ে উবে যাচ্ছে, অশেষ স্বপ্ন একটা হাসির বৃত্ত তৈরি করছে। আর একটা দ্রুতগামী অস্থির জীবন এই দুয়ের মাঝে বোঝাপড়া করে চলেছে…’। সঙ্গে হ্যাশট্যাগে হিন্দিতে মা লিখে একটি লাল হৃদয়ের ইমোজি।

২০০২ সালে মাত্র ১৬ বছর বয়সে মা-কে চিরদিনের জন্য হারিয়েছিলেন সুশান্ত। অভিনেতার জীবনে সেটি একটি বিশাল শূন্যতা তৈরি করেছিল। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই সময়ও একটি হাতে লেখা কবিতা মায়ের জন্য লিখে শেয়ার করেছিলেন অভিনেতা। অদ্ভূত ভাবে সোশ্যাল দুনিয়ায় তাঁর থেকে পোস্টেও মা ও মায়ের ছবি। সেদিনের সেই কবিতার শেষ লাইনগুলিতে সুশান্ত লিখেছিলেন, ‘তোমার মনে আছে? তুমি কথা দিয়েছিলে সারা জীবন আমার সঙ্গে থাকবে, এবং আমি কথা দিয়েছিলাম যাই হয়ে যাক না কেন হাসি মুখেই থাকব? এখন মনে হচ্ছে আমরা দু’জনেই ভুল।’

সুশান্তের মৃত্যুতে রবিবার যেন ফের সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের কথাগুলোই সত্যি হয়ে গেল। প্রমাণ হল, ‘কেউ কথা রাখেনি, কেউ কথা রাখে না।’ জীবনের ৩৪ বছরে সুশান্তও রাখলেন না…

সংবাদের ধরন : বিনোদন নিউজ : নিউজ ডেস্ক