বিস্তারিত

বলিউড নায়িকা কাজল হাজির হচ্ছেন ওয়েব সিরিজে

ছবি : সংগ্রহকৃত

অনেক দিন পর্দায় নেই এক সময়ের বলিউডের পর্দা কাঁপানো নায়িকা কাজল। ভক্তরা ভীষণ মিস করেন তাকে। ভক্তদের কথা বিবেচনা করেই এই নায়িকা হাজির হচ্ছেন ওয়েব সিরিজে। হ্যাঁ, প্রথমবারের মতো ওয়েব সিরিজে কাজ করলেন তিনি।

চলতি বছরেই মুক্তি পাবে কাজল অভিনীত ওয়েব সিরিজ ‘ত্রিভঙ্গ’। কাজল-অভিনীত এই ওয়েব সিরিজ়টি মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল আগামী বছর।যা এগিয়ে আনার জন্য নেটফ্লিক্সের সঙ্গে কথাবার্তা চলছে নির্মাতাদের। এটি পরিচালনা করেছেন অভিনেত্রী রেণুকা সাহানে।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, লকডাউনের সময়ে ওটিটি প্ল্যাটফর্মে কনটেন্টের বর্ধিত চাহিদার কথা মাথায় রেখেই রিলিজ় এগিয়ে আনার কথা ভাবা হয়েছে। এডিটের কাজ শেষ ইতিমধ্যেই, ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজ়িক এবং ভিএফএক্সের কিছু কাজ হয়ে গেলেই মুক্তির জন্য তৈরি হয়ে যাবে ‘ত্রিভঙ্গ’।

জানা গেছে, মুম্বাইয়ের প্রেক্ষাপটে তৈরি এই ছবির কাহিনি বেশ জটিল। একই পরিবারের তিন পুরুষের মধ্যে ছবির গল্প যাওয়া আসা করে। ৮০-র দশকের শেষ থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত বিস্তৃত এই গল্প। বড় পর্দায় ‘হেলিকপ্টার এলা’ ছবির মাধ্যমে প্রশংসিত হন কাজল। সবশেষ তাকে স্বামী অজয় দেবগনের সঙ্গে ‘তানহাজি: দ্য আনসাং ওয়ারিয়র’ ছবিতে দেখা যায়। যদিও ছবিতে তার চরিত্রটি ছোট ছিল। তবে ভক্তরা সেটি পছন্দ করেছেন।

কাজলের চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় ১৯৯২ সালে তার মায়ের সাথে প্রণয়ধর্মী বেখুদি চলচ্চিত্রে। তার প্রথম বাণিজ্যিক সফল চলচ্চিত্র রহস্যধর্মী বাজীগর (১৯৯৩) এবং যুগান্তকারী প্রণয়ধর্মী চলচ্চিত্র ইয়ে দিল্লাগি (১৯৯৪)।

নব্বইয়ের দশকে তিনি কয়েকটি শীর্ষ-উপার্জনকারী চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে আরো সাফল্য অর্জন করেছিলেন, যার মধ্যে অ্যাকশন-থ্রিলার করন অর্জুন (১৯৯৫), হাস্যরস ইশ্‌ক (১৯৯৭) এবং প্রণয়ধর্মী নাট্য চলচ্চিত্র প্যায়ার কিয়া তো ডরনা ক্যায়া (১৯৯৯), প্যায়ার তো হোনা হি থা (১৯৯৯) এবং হাম আপকে দিল মেঁ রেহতে হ্যাঁয় (১৯৯৯) অন্তর্ভুক্ত।

১৯৯৭ সালে গুপ্ত: দ্য হিডেন ট্রুথ রহস্য চলচ্চিত্রের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ খল অভিনয়শিল্পী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অর্জন করেন এবং ১৯৯৮ সালে মনস্তাত্ত্বিক রহস্য চলচ্চিত্র দুশমন তাকে সমালোচনামূলক স্বীকৃতি এনে দেয়।

২০০৬ সালে ফনা চলচ্চিত্রে অন্ধ কাশ্মিরি নারী, এবং ২০১০ সালে মাই নেম ইজ খান চলচ্চিত্রে বিচ্ছেদ হওয়া একক মা চরিত্রে অভিনয়ের জন্য রেকর্ড সংখ্যক পাঁচবার ফিল্মফেয়ার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী পুরস্কার অর্জন করেন। তার অভিনীত সর্বাধিক উপার্জনকারী চলচ্চিত্র হল অ্যাকশন-প্রণয়ধর্মী দিলওয়ালে (২০১৫) ও ঐতিহাসিক জীবনীমূলক তানহাজী (২০২০)।

সংবাদের ধরন : বিনোদন নিউজ : নিউজ ডেস্ক