বিস্তারিত

বর্ষবরণ অনুষ্ঠানের বেঁধে দেওয়া সময়সীমার পুনর্বিবেচনার দাবি

banglanews24 ছবি : সংগ্রহকৃত

পহেলা বৈশাখে বর্ষবরণের অনুষ্ঠান বিকেল ৫টার মধ্যে শেষ করার সরকারি সিদ্ধান্ত না মানার ঘোষণা দিয়েছেন সংস্কৃতিকর্মীরা। আজ মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বরাবর তনু হত্যার বিচার চেয়ে স্মারকলিপি জমা দেওয়া শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানিয়েছেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ।

এই সংস্কৃতিকর্মী বলেন, পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠান বাঙালির ইতিহাস-ঐতিহ্যের সঙ্গে জড়িত। অনুষ্ঠানকে সর্বজনীন ও নিরাপত্তা বিধান করা সরকারের দায়িত্ব। পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠান হয়ই মূলত বিকেল বেলায়। সময় বেঁধে দিয়ে এই প্রাণবন্ত অনুষ্ঠানের সর্বজনীনতা নষ্ট করা হচ্ছে। সংস্কৃতিকর্মীরা সরকারের এই সিদ্ধান্ত মানেন না বলেও জানান তিনি।

বেঁধে দেওয়া সময়সীমার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান গোলাম কুদ্দুছ। দেশের সংস্কৃতিকর্মীরা মুখোশ পরা ও বাঁশি বাজানো নিষিদ্ধ করার বিষয়েও আপত্তি তুলেছেন বলে জানান তিনি। জোট সভাপতি বলেন, পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠানের সবচেয়ে আকর্ষণীয় বিষয় হলো মঙ্গল শোভাযাত্রা। যেখানে রং-বেরঙের মুখোশের উপস্থিতি থাকে। তাই মুখোশ পরা যাবে না বলে সরকারের দেওয়া সিদ্ধান্ত দেশের ঐতিহ্যের সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।

পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠানে যথাযথ নিরাপত্তা দিয়ে সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠান পালন করতে গোলাম কুদ্দুছ নিরাপত্তার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

 

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক