বিস্তারিত

ফখরুলই হচ্ছেন বিএনপির মহাসচিব রিজভী সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব

bdnews, bd news, bangla news, bangla newspaper , bangla news paper, bangla news 24, banglanews, bd news 24, bd news paper, all bangla news paper, bangladeshi newspaper, all bangla newspaper, all bangla newspapers, bangla news today,prothom-alo. ছবি : সংগ্রহকৃত

ভারপ্রাপ্ত মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরই হচ্ছেন বিএনপির মহাসচিব। দীর্ঘ পাঁচ বছর ঝুলে থাকার পর অবশেষে দলের আসন্ন জাতীয় কাউন্সিলে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। অন্যদিকে বিএনপির কেন্দ্রীয় সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব হচ্ছেন দলের কেন্দ্রীয় দফতরের দায়িত্বে থাকা যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। বর্তমানে এ পদটিরও দায়িত্বে রয়েছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিএনপি চেয়ারপারসনের একটি ঘনিষ্ঠ সূত্র এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে। এ ব্যাপারে যুক্তরাজ্য থেকে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যানের সবুজ-সংকেত ইতিমধ্যেই এসে পৌঁছেছে। এ ছাড়াও দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির পাঁচটি পদে পাঁচজন নতুন মুখ চূড়ান্ত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব থেকে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে পূর্ণ মহাসচিব করার প্রক্রিয়াটি অনেক পুরনো। সর্বশেষ গত নভেম্বরে দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া চিকিৎসা শেষে লন্ডন থেকে দেশে ফেরার পর ডিসেম্বরের মধ্যে তাকে ভারমুক্ত করার সিদ্ধান্ত ছিল। সুদূর লন্ডনে বসেই দলীয় হাইকমান্ডের সম্মতিতে বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান বিষয়টি চূড়ান্ত করেন এবং চেয়ারপারসন দেশে ফেরার পর তার গঠনতান্ত্রিক ক্ষমতা বলে ডিসেম্বরের মধ্যেই তা বাস্তবায়নের কথা ছিল। বিএনপি চেয়ারপারসন লন্ডনে থাকাকালে তার একজন উপদেষ্টাও লন্ডন থেকে মির্জা ফখরুলের ভারমুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করেছিলেন। কিন্তু পৌর নির্বাচনের কারণে দলের জাতীয় কাউন্সিল পিছিয়ে যাওয়ায় বিষয়টি আবারও দীর্ঘসূত্রতায় পড়ে এবং এ নিয়ে গত এক মাসে বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ায় সংশয় প্রকাশ করে সংবাদ পরিবেশিত হয়।

সম্প্রতি মির্জা ফখরুলকে কাউন্সিলের মাধ্যমেই ভারমুক্ত করার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তাছাড়া দলীয় কাউন্সিলের প্রক্রিয়া শুরু হওয়ায় মির্জা ফখরুল নিজেও বিষয়টির সুরাহা এখন কাউন্সিলের মাধ্যমেই করতে চান বলে জানা যায়। বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লেফটেন্যান্ট জেনারেল মাহবুবুর রহমান (অব.) আগামী মাসে অনুষ্ঠেয় দলের কেন্দ্রীয় কাউন্সিলেই বিষয়টির সুরাহা হবে বলে আশা প্রকাশ করেন। অপর একটি সূত্র জানায়, দলের জাতীয় নির্বাহী কমিটিতে এবার নতুন, ত্যাগী, পরীক্ষিত, দক্ষ এবং দলের জন্য একনিষ্ঠ ব্যক্তিদের স্থান দেওয়া হবে। স্থায়ী কমিটির সমমর্যাদায় দলের জন্য একটি উপদেষ্টা পরিষদও গঠনের প্রক্রিয়া চলছে। এ প্রসঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসনের পররাষ্ট্রবিষয়ক একজন উপদেষ্টা জানান, দলের জাতীয় কাউন্সিলের মাধ্যমেই বিষয়টির সুরাহা হবে বলে আশা করছি। প্রসঙ্গত, দলের সাবেক মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের মৃত্যুর পর ২০১১ সালের এপ্রিল মাসে সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হয়।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : স্টাফ রিপোর্টার