বিস্তারিত

প্রবাসী বাংলাদেশিরা চরম ভাগ্য বিড়ম্বনায়

ছবি : সংগ্রহকৃত

করোনায় চরম ভাগ্য বিড়ম্বনায় প্রবাসী বাংলাদেশিরা। যুক্তরাষ্ট্রে একদিনে আড়াই হাজার মানুষের প্রাণহানি। ইউরোপের পর যুক্তরাষ্ট্রে করোনা আক্রান্ত শিশুদের শরীরে মিলেছে বিরল কাওয়াসাকি রোগের উপস্থিতি।

২৮ লাখ মানুষের কাতারে বাংলাদেশিসহ অভিবাসী শ্রমিক অন্তত ২০ লাখ। করোনায় কর্মহীন হয়ে পড়েছেন এদের অনেকে। বাংলাদেশি শ্রমিকের সাক্ষাৎকার সংবলিত একটি প্রতিবেদনে ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ান জানায়, খাবারের জন্য রাস্তায় ভিক্ষায় নেমেছেন অভিবাসী শ্রমিকরা।

কাতার প্রবাসী এক বাংলাদেশি জানান, আমার কাছে আর বেশি খাবার নেই, অল্প কিছু চাল-ডাল আছে। এতে হয়তো আর কদিন যাবে। এ খাবার শেষ হলে কী হবে।

প্রবাসী বাংলাদেশি মইদুল বলেন, আমার জমানো সব টাকা শেষ। খাবার ও বাসা ভাড়ার জন্য বন্ধু ও আত্মীয় স্বজনদের কাছ থেকে ধার নিয়েছি। কাজ ছাড়া এখানে টিকে থাকা খুবই কঠিন। করোনা নিয়ে ভয় নয় সমস্যা হলো কাজ নেই।

জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেন, দরিদ্র দেশ গুলোতে যেভাবে রোগটা হানা দিয়েছে তাতে অনুদানের পরিমান তিনগুনের বেশি বাড়াতে হচ্ছে। শুধু মানবিক বিচারেই নয়, দরিদ্র দেশ গুলোকে রক্ষা করতে না পারলে পুরো পৃথিবীই হুমকীর মধ্যে পড়বে।

লকডাউন শিথিলের মধ্যেই ভারতেও দুইদিনে রেকর্ড প্রায় ৭ হাজার মানুষ কোভিড ১৯ এ আক্রান্ত। সপ্তাহখানেক ধরে রেকর্ড আক্রান্তর ঘটনায় টেস্টর পরিধি বাড়িয়েছে রাশিয়া। নার্সিং হোমে বাড়ছে আক্রান্ত।

সংবাদের ধরন : র্শীষ সংবাদ নিউজ : নিউজ ডেস্ক