বিস্তারিত

পুরনো স্মৃতিতে সঞ্জয় দত্ত

ছবি : সংগ্রহকৃত

পুরনো স্মৃতিতে ভর করে ছেলে সঞ্জয় দত্ত ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করলেন মায়ের জন্য মনের কথা। ৬০ বছরের অভিনেতা মায়ের ছবির কোলাজে লিখলেন, ‘সেরা নায়িকা, সেরা স্ত্রী, সেরা মা’। সঙ্গে জন্মদিনের শুভেচ্ছা ও মাকে মিস করার কথা। পয়লা জুন বলিউডের অভিনেত্রী, সুনীল দত্তের স্ত্রী ও সঞ্জয় দত্তের মা নার্গিসের জন্মদিন।

গত সপ্তাহে বাবা সুনীল দত্তের মৃত্যু বার্ষিকীতেও সোশ্যাল পোস্ট করেছিলেন সঞ্জয়। লিখেছিলেন, ‘তুমি আমার সঙ্গে পাশেই আছো। জানি আমার কোনও চিন্তা করার প্রয়োজন নেই। ধন্যবাদ সব সময় আমার পাশে থাকার জন্য। মিস করি তোমাকে রোজ। জীবনের সবচেয়ে প্রিয় মানুষকে হারিয়ে এদিন তাঁর কথাই বার বার মনে চলে আসছে সঞ্জয় দত্তের।

গত ৩ মে ছিল নার্গিসের মৃত্যুবার্ষিকী। সেদিনও মায়ের জন্য মন কেমন ছিল সঞ্জয়ের। মায়ের সঙ্গে নিজের একটি সাদা-কালো ছবি পোস্ট করে জীবনের ধূসর অংশের কথা শেয়ার করেছেন অভিনেতা। লিখেছেন, ৩৯ বছর হয়ে গেল তুমি নেই। কিন্তু আমি জানি তুমি সব সময় আমার পাশে আছ। খালি মনে হয় আজকে এবং প্রতিদিন যদি তুমি থাকতে। ভালোবাসি, মিস করি তোমাকে মা।

১৯৮০ সালে ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান নার্গিস। তারপর থেকে সুনীল দত্তের ভূমিকা প্রবল হয়ে দেখা দেয় সঞ্জয় দত্ত-এর জীবনে। স্বল্প দিন হলেও মায়ের স্মৃতি জড়িয়ে থাকা শৈশব আজও সঞ্জয় দত্তের চোখের সামনে।

রাজকুমার হিরানির তৈরি সঞ্জয় দত্তের বায়োপিকেও দেখা গিয়েছে মা নার্গিসের সঙ্গে কতটা গভীর সম্পর্ক ছিল ছেলের। তাঁর জীবনে দাগ কেটেছিল মায়ের মৃত্যু। ক্যানসারের সঙ্গে যুদ্ধে হেরে গিয়েছিলেন নার্গিস। দেখে যেতে পারেননি ছেলের প্রথম ছবি। স্বপ্ন দেখতেন, ছেলেকে সিলভার স্ক্রিনে দেখবেন। তা আর হয়ে ওঠেনি। যথাসাধ্য চেষ্টাও করেছিলেন স্বামী-অভিনেতা সুনীল দত্ত-সঞ্জয়। তবে দুজনেই বিফল হয়েছিলেন। কম বয়সে মাকে হারানোটা সঞ্জয়ের কাছে ছিল যথেষ্ট মর্মান্তিক।

সঞ্জয়ের মা তখন চিকিত্সাধীন। সে সময়েই সঞ্জয় কুসঙ্গে পড়েন। মায়ের ম়়ৃত্যুর পর তাঁর মাদকাসক্তি যেন বেড়ে যায়। যা উপার্জন করতেন সবই খরচা হয়ে যেত মাদকে। এমনকী, নিজের জুতোর ভিতরে রেখে নাকি পাচার করতেন মাদক। রিহ্যাবে থাকার সময়ের ঘটনাও থাকছে ছবিতে। এই সময়ে তাঁর সঙ্গে বাইরের জগতের কোনও যোগাযোগও ছিল না। অসম্পূর্ণ অবস্থায় পড়ে থাকে তাঁর বেশ কয়েকটি সিনেমা।

View this post on Instagram

Happy Birthday Ma, miss you❤️

A post shared by Sanjay Dutt (@duttsanjay) on

সংবাদের ধরন : বিনোদন নিউজ : নিউজ ডেস্ক