বিস্তারিত

পুতুলকে কাছে রেখেই শিশুর ভাঙা পায়ের চিকিৎসা!

ছবি : সংগ্রহকৃত

জিকরা মালিক বয়স ১১ মাস, খাট থেকে পড়ে গিয়ে পা ভেঙে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। ১৭ আগস্ট বিছানা থেকে পড়ে জিকরার পা ভেঙে যায়। হাসপাতালে নিয়ে এলে কিছুতেই তার পায়ে ব্যান্ডেজ করতে পারছিলেন না সেখানকার ডাক্তাররা। বাচ্চাদের ভাঙা পায়ের চিকিৎসার বিশেষ উপায় ‘গ্যাল্লোস ট্র্যাকশন’–এর সিদ্ধান্ত নেন ডাক্তাররা। কিন্তু এতেও কাজ হচ্ছিল না। উপায় না দেখে জিকরার বাবা-মা পরিকে হাসপাতালে নিয়ে আসার কথা ভাবেন। তাই তার প্রিয় পুতুলকে কাছে রেখেই চলছে চিকিৎসা।

ঘটনাটি ঘটেছে দিল্লির লোক নায়েক হাসপাতালে। ওই হাসপাতালের অর্থোপেডিক ব্লকের ১৬ নম্বর বেডে জিকরা মালিকের পা প্লাস্টার করে ট্রাকশনে ঝুলানো। আর পাশেই শুয়ে আছে তার খেলার বন্ধু পুতুল। তারও পা একইভাবে ঝুলানো! হাসপাতালের বেডে দেখা যায়, জিকরার পা ঝুলানো অবস্থায় নিজেই ফিডিং বোতল ধরে খাচ্ছে। পাশে শুয়ে তারই সাইজের পরি। তারও পা ঝুলানো।

এ সময় জিকরার মা ফারিন জানিয়েছেন, বাড়িতে পাঁচ সেকেন্ডও চুপ করে বসে না জিকরা। এদিকে ডাক্তারেরা বলেছিলেন পা সোজা না রাখলে কোনোদিন পা ঠিক হবে না। জিকরার সঙ্গে তাঁর পুতুলের ছবি এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল।

সংবাদের ধরন : জীবন যাপন নিউজ : নিউজ ডেস্ক