বিস্তারিত

পর্বতারোহী রত্না’র ঘাতক কারাগারে

ছবি : সংগ্রহকৃত

গত ৭ অক্টোবর সকালে সাইকেল চালিয়ে রাজধানীর মিরপুরের পাইকপাড়ায় সরকারি কোয়ার্টারের বাসায় ফেরার পথে গাড়ির চাপায় নিহত পর্বতারোহী রেশমা নাহার রত্নাকে গাড়িচাপা দেওয়া চালক নাঈমকে (২৭) কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আজ শনিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বাকী বিল্লাহ এই আদেশ দেন।

ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্টেট আদালতে আজ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শেরেবাংলা নগর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোবারক আলী আসামি নাঈমকে দুদিনের রিমান্ড শেষে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে গত ১৯ আগস্ট নাঈমকে দুদিনের রিমান্ডে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত। আজ রিমান্ড শেষ হলে আসামি নাঈমকে আদালতে হাজির করা হয়। গত ১৮ আগস্ট রাজধানী ঢাকার ইব্রাহিমপুর থেকে কালো রঙের মাইক্রোবাসসহ চালক নাঈমকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গত ৭ অক্টোবর সকালে সাইকেল চালিয়ে রাজধানীর মিরপুরের পাইকপাড়ায় সরকারি কোয়ার্টারের বাসায় ফেরার পথে গাড়ির চাপায় নিহত হন রত্না। সংসদ ভবন ও চন্দ্রিমা উদ্যানের মাঝের রাস্তা ধরে এগোচ্ছিলেন তিনি। চন্দ্রিমা উদ্যানে প্রবেশের সেতুর কাছে পৌঁছানোর পরই একটা গাড়ি তাঁকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এরপর রত্নাকে গুরুতর আহত অবস্থায় শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানকার চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

রেশমা নাহার রত্না একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন। তিনি নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার বীরবিক্রম খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা আফজাল হোসেনের সন্তান। তিনি লোহাগড়া আদর্শ কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। এরপর ইডেন কলেজ থেকে গণিতে স্নাতক পাস করেন। পর্বতারোহণের ওপর তিনি ভারতের উত্তরাখণ্ডের উত্তরকাশিতে অবস্থিত নেহরু ইনস্টিটিউট অব মাউন্টেনিয়ারিং থেকে বি.এমসি কোর্সে পড়াশোনা করেন।

রত্না দীর্ঘদিন বিশ্ব সাহিত্যকেন্দ্রের পাঠচক্রের সঙ্গে সংযুক্ত ছিলেন। দেশে-বিদেশে বেশ কটি হাফ-ম্যারাথন দৌড়ানোর পর নিজেকে ফুল ম্যারাথনে দৌড়ানোর জন্য প্রস্তুত করছিলেন।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক