বিস্তারিত

নিহত পাইলট পৃথুলা রশিদের বাড়িতে শোকের ছায়া

ছবি : সংগ্রহকৃত

বাবা-কাজল হোসেন ও মা রাফেজা বেগমের একমাত্র সন্তান ইউএস বাংলা ইয়ারলাইন্সের সহকারি পাইলট পৃথুলা রশিদ। গ্রামের বাড়িতে যেয়ে আম খাওয়া হলোনা তার।

যশোরের শার্শা ইলিশপুর গ্রামের পৃথুলা রশিদ (২৪) সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেছেন না ফেরার দেশে। সন্তানকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ স্বজনেরা। এলাকায় চলছে শোকের মাতম।

মার্চে ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে আসার কথা ছিল তার। আর আসা হলো না। খবর আসে লাশের। তার স্মৃতি আবেগ তারিত করছে পরিবারের সদস্যদের। জাতীয় সম্মদ হারালো তারা। এ ক্ষতি পূরণ হবার নয়।

নিহতের চাচী বলেন, এমাসের গ্রামের বাড়িতে আম খেতে আসা কথার ছিল তার আর আসা হলো না। ছুটিতে এসে ঘুরে ফিরে বেড়াবে স্বজনদের বাড়িতে অপেক্ষায় ছিল এক সময়ের খেলার সাথি চাচাতো বোনেরা ছিল অপেক্ষায় আর ফিরে আসেনি আসবে না কোন দিন চলে গেছে পরপারে।

উল্লেখ্য, লন্ডন গ্রেজ এন্টার ন্যাশন্যাল থেকে ও এবং এ লেবেল অর্জনকারী ঢাকা নর্থ স্উাথ বিশ্ব বিদ্যালয় থেকে এমবি এবং আমিব্যাং এভিয়েশন থেকে উড্ডয়ন ড্রিগ্রি নিয়ে ২০১৬ সালের জুলাইয়ে অফিসার পদে সহকারি পাইলট হিসাবে ইউএস বাংলা ইয়ারলাইন্সের যোগদান করেন। একমাত্র মেয়ে সন্তানেেক হারিয়ে নি:স্ব সর্বশান্ত তার পরিবার।

সংবাদের ধরন : বাংলাদেশ নিউজ : নিউজ ডেস্ক